রাষ্ট্রপতি ভ্লাদিমির পুতিন কাজান শহরের ইউনিভার্সিয়াড নিয়ে প্রস্তুতি দেখে সন্তুষ্ট হয়েছেন. তিনি এখানের সমস্ত খেলাধূলা সংক্রান্ত জায়গা দেখে খুবই অভিভূত হয়েছেন ও বুঝেছেন যে, সবই করা হচ্ছে খুবই দ্রুত গতিতে. শরীর চর্চা ও খেলাধূলা সংক্রান্ত রাষ্ট্রীয় সভার উদ্বোধন করে পুতিন ঘোষণা করেছেন যে, রাশিয়া দেশে ২০১৮ সাল পর্যন্ত হওয়া সমস্ত আন্তর্জাতিক খেলাধূলার জন্য খেলোয়াড়দের বিনা ভিসায় দেশে আসার অনুমতি দেবে বলে মনে করেছে.

আন্তর্জাতিক ছাত্র ক্রীড়া প্রতিযোগিতা শুরু হওয়ার ১০৮ দিন আগে প্রায় তিরিশটি খেলাধূলা সংক্রান্ত জায়গা এরই মধ্যে ব্যবহার করা শুরু হয়ে গিয়েছে. তাতে চলছে নানা রকমের খেলাধূলা, যাতে বেশী করেই জনসাধারণ খেলার বিষয়ে আগ্রহী হতে পারেন. এটা খুবই আনন্দিত করেছে রাষ্ট্রপতি ভ্লাদিমির পুতিনকে, তিনি কাজান শহরকে হাস্যমুখে নাম দিয়েছেন রাশিয়ার নতুন খেলার রাজধানী বলেই, এই প্রসঙ্গে তিনি বলেছেন:

“আমি এখন সবই দেখতে পেয়েছি, যা এখানে হচ্ছে. আমার এই রকমের একটা অনুভূতি হচ্ছে যে, কাজান ধীরেধীরে রাশিয়ার খেলাধূলার রাজধানী হয়ে যাচ্ছে. এক বিশাল নির্মাণের কাজ, আর তা এগোচ্ছেও খুব দ্রুত গতিতে. বলা উচিত্ হবে যে, তা খুবই প্রভাবিত করে. কিন্তু আমাদের ঢিলে হলে চলবে না. তাই দরকার হবে মনোযোগ দিয়ে দেখার, কি করা হয়েছে ও কি আরও করতে হবে”.

শরীর চর্চা ও খেলাধূলা সংক্রান্ত রাষ্ট্রীয় সভা উদ্বোধন করে পুতিন মনে করিয়ে দিয়েছেন ২০১৮ সাল পর্যন্ত খেলোয়াড়দের জন্য ভিসা ছাড়া দেশে ঢোকার ব্যাপারে অনুমতি দেওয়ার প্রসঙ্গে, তিনি বলেছেন:

“কাজানের ইউনিভার্সিয়াড আন্তর্জাতিক স্তরের অনেকগুলি প্রতিযোগিতার সূচনা করবে, যা হবে রুশ প্রজাতন্ত্রে. আর আমরা এখানে কি ভাবে কাজের ব্যবস্থা করবো, তা দেখেই অনেকটা ঠিক করা হবে আমাদের সম্ভাবনা সম্বন্ধে ও আমাদের দায়িত্ব পালনের ক্ষমতা সম্বন্ধে. ২০১৮ সাল পর্যন্ত রাশিয়াতে প্রায় ২০টি আন্তর্জাতিক মানের বৃহত্ প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হতে চলেছে, বিশ্ব কাপের. আর খুবই ঠিক কাজ হবে, যদি আমরা সমস্ত খেলোয়াড়দের জন্যই, যাঁরা এখানে অংশ নিতে আসবেন, ভিসা বিহীণ ঢোকা বের হওয়ার ব্যবস্থা করে দিই”.

রাষ্ট্রপতি ইউনিভার্সিয়াডের জন্য তৈরী হওয়া তিনটি নতুন জায়গা দেখেছেন – সাঁতারের জন্য প্রতিযোগিতার প্রাসাদ, “কাজান অ্যারেনা” ষ্টেডিয়াম ও আর্টিস্টিক জিমন্যাসটিক্সের জন্য কেন্দ্র. কাজান অ্যারেনা নামক ফুটবল ষ্টেডিয়ামে ইউনিভার্সিয়াড ওপেনিং সেরিমনি হবে, ২০১৮ সালের বিশ্বকাপের ফুটবল ম্যাচ হবে. আর সাঁতারের ষ্টেডিয়ামে ২০১৫ সালের কিছু প্রতিযোগিতা হবে. প্রযুক্তি ক্ষেত্রে সব থেকে আধুনিক ভাবে তৈরী ও এমনকি প্রার্থনার জন্য আলাদা করে তৈরী করা কক্ষ সমেত এই অ্যারেনা গুলি সাংবাদিকদের খুবই প্রভাবিত করেছে, এই কথা উল্লেখ করে “কাজান অ্যারেনা” পাবলিক হোল্ডিং কোম্পানীর ডিরেক্টর রাদিক মিন্নাখমেতভ বলেছেন:

“এই কেন্দ্রের ক্ষেত্রে সব দিক থেকেই এটা বিরল ধরনের. প্রধান হল – এই ষ্টেডিয়ামের বিশাল মাঠ. এর ছাদ ধরে রয়েছে ১০০ থেকে ১০৮ মিটার দূরে থাকা আটটি স্তম্ভের উপরে ধাতব গঠন, তার ওজন ১১ হাজার ৩০০ টন! আমি বলতে পারি যে, আমাদের আবহাওয়ার পরিস্থিতিতে এটা সব থেকে মজবুত গঠন. প্রত্যেক স্কোয়ার মিটারে এটা ৫০০ কিলো ওজন নিতে সক্ষম”.

ইউনিভার্সিয়াডের মধ্যে ২৭ রকমের খেলা হবে. খেলোয়াড়দের মধ্যে ৩৫১ সেট মেডেল নিয়ে প্রতিযোগিতা করা হবে, রাষ্ট্রপতিকে তাদের মডেল দেখানো হয়েছে. এই দিন গুলিতে ইউনিভার্সিয়াডের আগুন রাশিয়ার তিরিশটি শহর ও তাতারস্থান রাজ্যের ৪৩টি পৌরসভার কেন্দ্র হয়ে আসছে. তার দৌড় শেষ হবে কাজান শহরের এই ষ্টেডিয়ামে, খেলা শুরুর আগে – ৬ই জুলাই.