বিরোধীপক্ষের সাথে আলাপ-আলোচনার জন্য সিরিয়ার কর্তৃপক্ষের দ্বারা গঠিত গ্রুপে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে পাঁচ জনকে: সিরিয়ার প্রধানমন্ত্রী, প্রথম উপ-প্রধানমন্ত্রী এবং তিন জন মন্ত্রী. এ সম্বন্ধে শুক্রবার লিখেছে রাশিয়ার “কমের্সান্ত” পত্রিকা. এঁরা হলেন প্রধানমন্ত্রী ওয়ায়েল আল-হালকি, প্রথম উপ-প্রধানমন্ত্রী কাদ্রি জামিল, জাতীয় আপোষ সংক্রান্ত মন্ত্রী আলি হায়দার, তথ্যমন্ত্রী ওমরান আজ-জৌবি এবং রেড-ক্রসের ব্যাপার সংক্রান্ত রাষ্ট্রীয় মন্ত্রী জোসেফ স্ভেইদ, সঠিক করে লিখেছে পত্রিকাটি. রাশিয়ার স্ট্র্যাটেজিক গবেষণা ইনস্টিটিউটের এশিয়া ও নিকট প্রাচ্য কেন্দ্রের অধিকর্তা ইয়েলেনা সুপোনিনা-র কথায়, এ দলে সবচেয়ে খ্যাতনামা ব্যক্তি হলেন কাদ্রি জামিল. প্রসঙ্গত, বিশেষজ্ঞ উল্লেখ করেছেন যে, বিরোধীপক্ষের অনেকেই তাঁকে আলাপ-আলোচনার শরিক হিসেবে গ্রহণ করবে না. তারা মনে করে যে, জামিল রাষ্ট্রপতি বাশার আসদের অতি অনুগত ব্যক্তি এবং ব্যবসার সাথে জড়িত. দলের বাকি সদস্যরা কম খ্যাত. পত্রিকার সংলাপীর মূল্যায়ন অনুযায়ী “সিরিয়ার নেতৃবৃন্দের স্থিতিতে অগ্রগতি পরিলক্ষিত হচ্ছে, যা অর্জিত হয়েছে মস্কোর তরফ থেকে প্রচেষ্টার কল্যাণেও”.