সিরিয়ার বিরোধীপক্ষকে অন্যান্য দেশের দ্বারা অস্ত্রে সজ্জিত করা আন্তর্জাতিক বিধানের পরিপন্থী, আর সিরিয়ার বর্তমান রাষ্ট্রপতি বাশার আসদের ভাগ্য নির্ধারণ করা উচিত্ খাস সিরিয়ার জনগণেরই. গ্রেট-বৃটেনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী উইলিয়াম হেগ-এর সাথে আলাপ-আলোচনার ফলাফলের ভিত্তিতে বলেছেন রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভরোভ. মন্ত্রী তাছাড়া পশ্চিমী শরিকদের আহ্বান জানান, যাতে তাঁরা সিরিয়ার বিরোধীপক্ষের মাঝে কর্তৃপক্ষের সাথে আলাপ-আলোচনার জন্য দল গড়ে তুলতে সাহায্য করেন. লাভরোভ জোর দিয়ে বলেন যে, বিরোধীপক্ষ যদি সত্যি সত্যিই রক্তক্ষয় থামাতে চায়, তাহলে সব ধরণের প্রাথমিক শর্ত ত্যাগ করা উচিত. পশ্চিমী দেশগুলি উত্তরণের প্রক্রিয়ার জন্য প্রাথমিক শর্ত হিসেবে উল্লেখ করছে শাসন ক্ষমতার বদল এবং আসদের পদত্যাগ. লাভরোভ বলেন যে, মস্কোয় তাছাড়া আশা করা হচ্ছে যে, সিরিয়ার বিরোধীপক্ষ সিরিয়ার সরকারের সাথে আলাপ-আলোচনার জন্য দল গঠন করবে. বুধবার লন্ডনে এক সাংবাদিক সম্মেলনে তিনি বলেন, “সরকার এবং বিরোধীপক্ষ উভয়েরই আলাপ-আলোচনার দল গঠন করা উচিত্. সরকার তা করেছে, আর বিরোধীপক্ষের কাছ থেকেও আমরা তা আশা করছি”.