মিয়ানমার বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক নিষেধাজ্ঞার একাংশ প্রত্যাহিত হওয়ার পরে রাশিয়ার সামনে মিয়ানমার সাথে সামরিক-প্রযুক্তিগত সহযোগিতার নতুন সম্ভাবনার সৃষ্টি হয়েছে. সোমবার মিয়ানমার রাজধানী নেইপিডোতে সে দেশের উপ-রাষ্ট্রপতি নিয়ান টুনের সঙ্গে আলাপ-আলোচনার পরে রাশিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রী সের্গেই শোইগু এই মন্তব্য করেছেন.

শোইগু এই আশা প্রকাশ করেছেন, যে সোভিয়েত ইউনিয়ন ও মিয়ানমার মধ্যে পারস্পরিক সম্পর্কের যে ঐতিহ্য স্থাপিত হয়েছিল, তাকে আরও মজবুত করা ও তার বিকাশ ঘটানো সম্ভব হবে. তিনি আরও উল্লেখ করেছেন, যে মস্কো সমস্ত ক্ষেত্রে পারস্পরিক লাভজনক ও উপযোগী সহযোগিতার বিকাশে সর্বতোভাবে সাহায্য করবে – অর্থনীতিতে, সাংস্কৃতিক ক্ষেত্রে ও সামরিক ব্যাপারে.