0চীনের প্রতিরক্ষা নীতি এশিয়ায় শান্তি ও স্থিতিশীলতা বজায় রাখায় মুখ্য ভূমিকা পালন করে. এ সম্বন্ধে সোমবার এক সাংবাদিক সম্মেলনে বলেছেন সর্ব-চীনা গণ-প্রতিনিধি সভার সরকারী প্রতিনিধি ফু ইইঙ্গ. প্রসঙ্গত, সর্ব-চীনা গণ-প্রতিনিধি সভার অধিবেশন মঙ্গলবার বেজিংয়ে শুরু হচ্ছে. ফু ইইঙ্গ বলেন, “চীনের শান্তিপূর্ণ পররাষ্ট্র নীতি এবং তার প্রতিরক্ষাত্মক সামরিক নীতি এশিয়ায় শান্তি ও নিরাপত্তায় উপকার করছে”. ২০১৩ সালের সামরিক বাজেট সংক্রান্ত প্রশ্নের উত্তরে তিনি এ মন্তব্য করেন. একই সঙ্গে ফু ইইঙ্গ বহু বছরে এই প্রথম পরিকল্পিত সামরিক খরচের সুনির্দিষ্ট পরিমাণ উল্লেখ করতে অস্বীকার করেন. সর্ব-চীনা গণ-প্রতিনিধি সভার অধিবেশনে চীনের কেন্দ্রীয় সামরিক পরিষদের – সর্বোচ্চ রাষ্ট্রীয় সামরিক সংস্থার সভাপতিকে অনুমোদন করার কথা. আশা করা হচ্ছে যে, তিনি হবেন চীনা কমিউনিস্ট পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির প্রধান সচিব সি জিনপিন, যাঁকে চীনের সভাপতির – রাষ্ট্রপ্রধানের পদেও নির্বাচিত করার কথা.