জাতিসংঘ বিশ্ব জনসমাজের কাছে সিরিয়ায় সংঘর্ষরত পক্ষগুলিকে সামরিক সাহায্য যোগানো থেকে বিরত থাকার সুপারিশ করছে. জাতিসংঘের সাধারন সম্পাদকের মুখপাত্র এদুয়ার্দো দেল বুয়েই ঘোষনা করেছেন, যে “সামরিক সাহায্যদান এমনিতেই জটিল পরিস্থিতিকে জটিলতর করে তুলবে. লড়াইরত যে কোনো পক্ষকে সামরিক সাহায্য যোগানো কোনো সুফল দেবে না. এরজন্য প্রয়োজন আলাপ-আলোচনার”. এভাবেই জাতিসংঘের সাধারন সম্পাদকের অবস্থান দেল বুয়েই ব্যাখ্যা করেছেন, ইউরোপীয় সংঘ ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সিরিয়ার বিরোধীপক্ষকে অস্ত্রসজ্জিত করার পরিকল্পনার প্রসঙ্গে.

বৃহস্পতিবার ইউরোপীয় সংঘের সর্বোচ্চ পরিষদ সিরিয়ার বিরুদ্ধে আরোপিত সমস্ত নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ আরও তিনমাস বাড়িয়েছে, বলে সেখানকার তথ্যদপ্তর জানিয়েছে. একইসঙ্গে পরিষদ সিরিয়ায় অস্ত্র সরবরাহের ওপর নিষেধাজ্ঞায় সংশোধনী এনেছে. এই সংশোধনীর দ্বারা সিরিয়ার সরকারের বিরুদ্ধে লড়াইরত বিদ্রোহীদের সামরিক মালপত্র যোগান দেওয়া যাবে. ব্রাসেলস থেকে প্রচারিত কম্যুনিকেতে বলা হয়েছে, যে সাহায্য দেওয়া হবে অসামরিক লোকজনের সুরক্ষার জন্য. এর আগে হোয়াইট হাউস জানিয়েছে, যে আমেরিকাও সিরিয়ায় রাজনৈতিক চিত্রপট বদলের প্রক্রিয়া ত্বরাণ্বিত করার উদ্দেশ্যে আরো সক্রিয়ভাবে বিরোধীপক্ষকে সাহায্য যোগাবে.

এদিকে সিরিয়া থেকে খবর আসছে সাংঘাতিক লড়াইয়ের দামাস্কাসের পূর্বপ্রান্তে, আলেপ্পো শহরে সামরিক বিমানঘাঁটিগুলোর ওপর জঙ্গীদের হামলা প্রতিহত করা হয়েছে.