দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট পাক কীন হে আশা করেন যে, উত্তর কোরিয়ার পারমাণবিক কর্মসূচি নিয়ে ছয়পাক্ষিক আলাপ-আলোচনায় রাশিয়ার অংশগ্রহণ কোরিয়া উপদ্বীপ অঞ্চলে উত্তেজনা লাঘব করতে সাহায্য করবে. এ সম্বন্ধে মঙ্গলবার জানিয়েছে দূর প্রাচ্য ফেডারেল অঞ্চলে রাশিয়ার রাষ্ট্রপতির স্থায়ী প্রতিনিধি ভিক্তর ইশায়েভের প্রেস-সার্ভিস, সেওলে পাক কীন হে-র সাথে ইশায়েভের সাক্ষাতের ফলাফলের ভিত্তিতে. দক্ষিণ কোরিয়ার রাষ্ট্রপতি তাছাড়া রাশিয়ার সাথে তাঁর দেশের মিত্রভাবাপন্ন ও বহুমুখী সম্পর্কের গুরুত্বের কথা উল্লেখ করেন. দক্ষিণ কোরিয়ার রাষ্ট্রপতি তাছাড়া রাশিয়ার দূর প্রাচ্যের অঞ্চলগুলির সাথে দক্ষিণ কোরিয়ার সহযোগিতা বিকাশের গুরুত্বের কথাও জোর দিয়ে বলেন. ইশায়েভ নিজের তরফ থেকে এ কথা সমর্থন করেন যে, রাশিয়া দক্ষিণ কোরিয়ার সাথে মিত্রভাবাপন্ন ও সুপ্রতিবেশীসুলভ সম্পর্ক বজায় রাখতে এবং এ অঞ্চলের বিকাশের জন্য এ সম্পর্কের ক্ষমতা ব্যবহার করতে চায়. রাশিয়া “এ অঞ্চলে শান্তি ও স্থিতিশীলতা বজায় রাখার গুরুত্বপূর্ণ শর্ত হিসেবে আন্তঃকোরীয় রাজনৈতিক সংলাপ এবং অর্থনৈতিক পারস্পরিক ক্রিয়াকলাপ সমর্থন করবে”, যোগ করে বলেন তিনি. এ সাক্ষাতে পক্ষদ্বয় তাছাড়া আলোচনা করেছেন রাশিয়া, দক্ষিণ কোরিয়া ও উত্তর কোরিয়ার মাঝে ত্রিপাক্ষিক পারস্পরিক ক্রিয়াকলাপের প্রশ্ন, ট্রান্স-কোরীয় রেলপথ এবং ট্রান্স-কোরীয় গ্যাস পাইপলাইনের কাজ করার প্রশ্ন. রাশিয়ার রাষ্ট্রপতির নির্দেশে ইশায়েভ সেওলে রাশিয়ার প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব করেন, যা গত সোমবার কোরিয়া প্রজাতন্ত্রের রাষ্ট্রপতির পদে পাক কীন হে-র অধিষ্ঠানের সমারোহ উত্সবে অংশগ্রহণ করেছে.