মিশরের রাষ্ট্রপতি আনোয়ার সাদ্দাত-কে হত্যার মামলায় অভিযুক্ত উসামা খালিফ দেশের মানব অধিকার রক্ষা সংক্রান্ত জাতীয় পরিষদের অন্তর্ভুক্ত হয়েছে. নিহত রাষ্ট্রপতির কন্যা রাকিয়া সাদ্দাত এ সিদ্ধান্ত বাতিলের দাবি করে মিশরের আদালতে প্রতিবাদ জানিয়েছেন, অনুরূপ প্রতিবাদ তাছাড়া জানানো হয়েছে মানব অধিকার রক্ষা পরিষদের সভাপতির কাছে এবং দেশের পার্লামেন্টের উচ্চ কক্ষ – পরামর্শ পরিষদের প্রধানের কাছে. অভিযোগে উল্লেখ করা হয়েছে যে, মানব অধিকার রক্ষা সংস্থায় রাডিক্যাল ইস্লামপন্থী খালিফের সদস্য-পদ পরিষদের মর্যাদা হানি করছে এবং পরিষদের যোগ্যতা ও বাস্তববাদিতা সম্বন্ধে সন্দেহ জাগায়. মিশরের প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি আনোয়ার সাদ্দাত নিহত হন ১৯৮১ সালের হেমন্তে কায়রো-তে সামরিক প্যারেডের সময়. প্যারেডের একদল অংশগ্রহণকারী সরকারের মঞ্চের কাছ দিয়ে যাওয়ার সময় সেখানে থাকা অতিথিদের উপর গুলি চালায় এবং রাষ্ট্রপতিকে মর্মান্তিকভাবে আহত করে. এ হত্যাকাণ্ডের আয়োজন করেছিল চরমপন্থী দল “আল-গামাআ আল-ইস্লামিয়া” এবং “ইস্লামিক জিহাদ” দলের সদস্যরা, যারা এভাবে সাদ্দাতের প্রতি প্রতিশোধ নিয়েছিল ইস্রাইলের সাথে শান্তি চুক্তি সম্পাদনের জন্য.