গত ৭ ফেব্রুয়ারি রাশিয়ার জন্য একটি বিশেষ দিন ছিল. ওই দিন থেকে শুরু হয়েছে ২২তম শীতকালিন অলিম্পিকের দিন গননা. এই ক্রিড়া উতসবের বাকি আছে ঠিক ১ বছর. নিজেদের দেশে এটি হবে ১ম শীতকালিন অলিম্পিকের আসর. রাশিয়ার ৮টি শহরে ওই দিন অলিম্পিকের দিন গননা শুরু হয়.

অলিম্পিক রাজধানী সোচির আইস প্যালেসে এ উপলক্ষ্যে আয়োজন করা হয় “ক্রিড়ার বাকি ১ বছর” শীর্ষক বর্নাড্য অনুষ্ঠান. রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি ভ্লাদিমির পুতিন ও আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটির সভাপতি জ্যাক রগি যৌথভাবে দিন গননার আনুষ্ঠানিকতায় অংশ নেন.

২০০৭ সালে আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটি রাশিয়ার কোটি কোটি নাগরিকের মনের আশা পূরন করেছে. এই ক্রিড়া প্রতিযোগিতা আয়োজনের জন্য নিজেদের তরফ থেকে আমাদের যা যা করা দরকার আমরা তাই করবো এবং আমাদের প্রতি যে বিশ্বাষ রয়েছে তা রক্ষা করবো. নিজের বক্তব্যে এমনটি বলছিলেন রুশ রাষ্ট্রপতি ভ্লাদিমির পুতিন. তাঁর ভাষায়, “সোচি বিশ্ব ক্রিড়া কেন্দ্রের রাজধানীতে পরিণত হতে ঠিক ১ বছর বাকি আছে. যেখানে বসবে ২২তম অলিম্পিক গেমসের আসর. বিশ্বের সেরা ক্রিড়াবিদরা তাদের সামর্থ, জ্ঞান আর ক্রিড়াশৈলী নিয়ে শুধুমাত্র বিজয়ের জন্য এখানে মিলিত হবে. আমরা সবাই, যারা দর্শক, খেলোয়াড় ও আয়োজকসহ সবাই অধীর আগ্রহ নিয়ে এর অপেক্ষায় আছি”.

গত ছয় বছরে সোচি শহরে অলিম্পিক আয়োজনের প্রস্তুতকালিন ব্যাপক কার্যক্রম গ্রহণ করা হয়. কৃষ্ণ সাগরের তীরে অবস্থিত সোচি শহরে একদম শূণ্য থেকে গড়ে তোলা হয়েছে অলিম্পিক আইস পার্ক. যেখানে ফিগার ও দ্বৈত স্কেটিংয়ের প্রতিযোগিতা চলবে. এছাড়া পাহাড়ী স্কেটিং রুট ও স্নোবুর্ডসহ অন্যান্য ইভেন্টগুলোর জন্য প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে. অধিকাংশ ক্রিড়া অবকাঠামোগুলো ইতিমধ্যে পরীক্ষামূলক যাচাইয়ের জন্য খুলে দেওয়া হয়েছে.

ক্রিড়াবিদ ও আন্তর্জাতিক ক্রিড়া ফেড়ারেশনের বিশেষজ্ঞরা সোচি অলিম্পিকের প্রস্তুতির প্রশংসা করেছেন. সোচির অলিম্পিক অবকাঠামোর অবস্থান খুবই ভাল বলে তাঁরা উল্লেখ করেন. একটি পার্ক থেকে অন্যটির অবস্থান কাছাকাছি. আর উপকূলীয় এলাকা থেকে পাহাড়ী এলাকায় মাত্র ৩০ মিনিটের মধ্যে ট্রেনে করে যাওয়া যাবে. সোচির অলিম্পিক প্রতিটি ক্রিড়াবিদ ও হাজার হাজার দর্শকের জন্য সবচেয়ে আরামদায়ক ও আনন্দদায়ক হবে. এমনটি বলেছেন আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটির সভাপতি জ্যাক রগি তিনি বলেন, “আমি খুবই আনন্দিত এই কারণে যে, সবকটি অলিম্পিক পার্কগুলো খুবই কাছাকাছি অবস্থিত এবং তাদের অবস্থান প্রাকৃতিক মনোরম পরিবেশে. আরো একটি বিষয় হচ্ছে, রাশিয়া হল অন্যতম শক্তিশালী ক্রিড়াপরাশক্তির দেশ, এখানে অসাধারণ খেলোয়াডরা রয়েছেন. পুরো বিশ্ব এই খেলা দেখে আনন্দ পাবে”.

অলিম্পিক প্রকল্পের বাস্তবায়নের অংশ হিসেবে সোচিতে নতুন সড়ক, সেঁতু, ট্যানেল, চৌরাস্তা, আধুনিক ও আরামদায়ক হোটেল এবং বিমানবন্দরের সংষ্করণ করা হয়েছে. শীতকালিন ক্রিড়া ইভেন্টগুলোতে নিজেদের যাচাই করার সুযোগ পাচ্ছে রাশিয়ার ক্রিড়াবিদরা. তবে মূল অলিম্পিক গেমস আয়োজনের সার্বিক পরিস্থিতি কেমন?. এই প্রশ্নের জবাবে সোচি-২০১৪ অলিম্পিক আয়োজক কমিটির প্রধান দিমিত্রি চেরনিশেনকো বলেন, এখন শুরু হচ্ছে, সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ পর্ব, এক মিনিট অপচয় করার অবকাশ নেই. তিনি আরও বলেন, আমরা এ বছর স্বেচ্ছাসেবক সংগ্রহ কার্যক্রম শেষ করবো. ২ মার্চ থেকে খুবই অল্প সময় আমাদের হাতে থাকবে. প্রায় ১ লাখ ৬০ হাজার প্রার্থী প্রাথমিক পর্বে উত্তীর্ণ হয়েছে. আমাদের শুধু ২৫ হাজার স্বেচ্ছাসেবক দরকার. প্রতিযোগিতা হবে খুবই উচ্চপর্যায়ে এবং সম্ভাবনা সবারই রয়েছে কিন্তু শুধু সেরারাই সোচি ২০১৪-তে যাওয়ার সুযোগ পাবে. এ বছরের ৭ অক্টোবর থেকে পরিক্রমা করবে এই অলিম্পিক মশাল. আমরা আরো অনেক আগ্রহী বিষয় পরিবেশন করবো যা আপাতত গোপন রাখতে হচ্ছে. অফিশিয়াল জার্সি, নঁকশা, মেডেলসহ আরো আনেক কিছু.