রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সংস্কৃতি মন্ত্রণালয় ও রাষ্ট্রীয় লেনিন লাইব্রেরিকে সুপারিশ করেছে আমেরিকার কংগ্রেসের লাইব্রেরিকে জরিমানা করার, যেহেতু ১৯৯৪ সালে তারা শ্নীরসনের সংগ্রহের সাতটি বই সাময়িক মেয়াদের জন্য ধার নিয়ে আর ফেরত দেয়নি. ‘কমেরসান্ত’ সংবাদপত্র এই সম্পর্কে লিখেছে. শ্নীরসনের সংগৃহীত গ্রন্থগুলিকে কেন্দ্র করে কেচ্ছা শুরু হয়েছিল সেই সোভিয়েত আমলে. আমেরিকার হাসিদ গোষ্ঠী ঐ গ্রন্থাগার তাদের হাতে তুলে দেওয়ার দাবী করেছিল এই অযুহাত দিয়ে, যে সংগ্রহকারী নাকি গ্রন্থাগারের উত্তরাধিকার তাদের দিয়েছিলেন. জানুয়ারীর মাঝামাঝি আমেরিকার ফেডেরাল কোর্ট রায় দিয়েছিল, যে ঐসব পান্ডুলিপি ও দুষ্প্রাপ্য বইগুলি আমেরিকার হাসিদদের ফেরত দিতে রাশিয়ার অনীহার কারনে রাশিয়াকে প্রতিদিন পিছু ৫০ হাজার ডলার করে জরিমানা দিতে হবে. রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভরোভ তখনই বলেছিলেন, যে রাশিয়া এর মোক্ষম জবাব দেবে.