উত্তর কোরিয়ার একমাত্র বড় শরিক চীন সাহায্যের পরিমান কমাতে পারে, যদি ঐ দেশ পরিকল্পিত পারমানবিক নিরীক্ষা বাস্তবায়িত করে. চীনের সংবাদ মাধ্যমগুলি এই খবর প্রচার করছে.

শুক্রবার চীনের ইংরাজীভাষী সংবাদপত্র গ্লোবাল টাইমস লিখেছে – উত্তর কোরিয়া পারমানবিক নিরীক্ষা চালিয়ে যেতে থাকলে চীন তত্ক্ষণাত সাহায্যের পরিমান কমিয়ে দেবে. চীন হাত গুটিয়ে বসে থাকতে পারে না, কারন তার প্রভাব পড়তে পারে বেইজিং ও পিয়ং-ইয়ংয়ের মধ্যে সম্পর্কের ওপর বলেই – লিখছে কাগজটির সম্পাদকীয় প্রতিবেদন. এইমুহুর্তে চীনের পক্ষে সম্ভব হচ্ছে না দুই কোরিয়া, জাপান ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে সম্পর্কের ক্ষেত্রে ভারসাম্য বজায় রেখে চলা. চীনকে ব্যবহারিক নীতি গ্রহণ করতে হবে ও বিনিয়োগের পরিমান ও স্ট্র্যাটেজিক লাভকে বিবেচনায় রাখতে হবে. চীন কোরিয় উপদ্বীপে শান্তির প্রয়াসী, কিন্তু চীনের পছন্দ হয়নি উত্তর কোরিয়ার করা সমালোচনা, যখন চীন সম্প্রতি নিরাপত্তা পরিষদের ঘোষনাপত্রে সায় দিয়েছে উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা কড়া করার প্রশ্নে. মঙ্গলবার নিরাপত্তা পরিষদ সব সদস্যের অনুমতিক্রমে ঐ ঘোষনাপত্র গ্রহণ করেছে.