জাতিসংঘের সাধারন সম্পাদক বান কি মুনের মতে এই মুহুর্তে মালিতে সামরিক অভিযান করা ছাড়া অন্য কোনো গতি নেই, যেহেতু সে দেশে লড়াইরত ইসলামিরা সরকারের সাথে আলাপ-আলোচনায় বসতে চাইছে না. তবে বান কি মুনের দৃঢ়বিশ্বাস, যে শেষমেষ মালিতে সংকটের সুরাহা করা দরকার সংলাপের মাধ্যমে. জাতিসংঘের সদর-দপ্তরে এ বছরে অনুষ্ঠিত প্রথম সাংবাদিক সম্মেলনে তিনি স্মরণ করিয়ে দিয়ে্ছেন, যে গতসপ্তাহে তিনি মালির রাজধানী বাকামোতে জাতিসংঘের সমন্বয় দপ্তর খোলার নির্দেশ দিয়েছেন, যার দায়িত্ব সংঘাতরত পক্ষদের মধ্যে আলাপ-আলোচনার পথ খুঁজে বের করার.

এই মুহুর্তে মালির কেন্দ্রীয় সরকারের আর্জিতে ফরাসী ফৌজ সেখানে মোতায়েন হয়েছে, যাদের গ্রেট বৃটেন, আমেরিকা সহ একসারি পশ্চিমীদেশ পরিবহনগত সাহায্য যোগাচ্ছে. একই সময়ে পশ্চিম আফ্রিকার আঞ্চলিক সহযোগিতা সংস্থা মালির সরকারের সাহায্যে ৩৩০০ সেনা সেখানে পাঠাচ্ছে.