এই কথা “রেডিও রাশিয়াকে” বলেছেন রাশিয়ার প্রাচ্য অনুসন্ধান ইনস্টিটিউটের কর্মী বরিস দোলগভ. তিনি মনে করিয়ে দিয়েছেন যে, এটা আসাদের নতুন বছরের প্রথম বক্তৃতা. তা সিরিয়ার সঙ্কট থেকে বের হয়ে আসার জন্য সক্রিয় কাজকর্মের সঙ্গেই জড়িত, তার মধ্যে রাশিয়াও কাজ করছে. নিজের ভাষণে রাষ্ট্রপতি খুবই স্পষ্ট ভাবে সিরিয়ার ও তার চারপাশের পরিস্থিতি নিয়ে আলোকপাত করেছেন. তিনি ঠিকই বলেছেন যে, সশস্ত্র প্রতিপক্ষকে বাইরের দেশ থেকে সহায়তা করাই হচ্ছে সঙ্কট চলতে থাকার জন্য প্রধান কারণ. রাজনৈতিক সিদ্ধান্ত নিয়ে যা বলা যেতে পারে তা হল যে, এটা সত্যিই সিরিয়াতে সশস্ত্র বিরোধ অবসানের একমাত্র পথ. কিন্তু তা কার্যকরী করার জন্য আগেও যেমন বলা হয়েছে যে, সেই সমস্ত গোষ্ঠী গুলিকে অর্থ ও অস্ত্র সাহায্য দেওয়া বন্ধ করতে হবে, যারা সরকারি ফৌজ ও শান্তি প্রিয় জনগনের বিরুদ্ধে কাজ করছে. এই সমস্ত গোষ্ঠীর বহু সদস্যই আল- কায়দা গোষ্ঠী থেকে দলে ভিড়েছে. যখন তাদের সাহায্য দেওয়া বন্ধ হবে, তখনই আভ্যন্তরীণ বিরোধী পক্ষ যেমন পারস্পরিক সহযোগিতা পরিষদের মত গোষ্ঠীর সঙ্গে রাজনৈতিক আলোচনার সম্ভাবনা উন্মুক্ত হবে. বরিস দোলগভ এই সিদ্ধান্তেই পৌঁছেছেন.