চীনা সরকার "নিউইয়র্ক টাইমস" পত্রিকার প্রতিনিধির ভিসার মেয়াদ ২০১৩ সাল পর্যন্ত না বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে.

ক্রিস বাকলি নামের ওই সাংবাদিক ৩১শে ডিসেম্বর চীন ত্যাগ করেছেন. "নিউইয়র্ক টাইমস" পত্রিকার ওয়েবসাইটে এ খবর জানানো হয়েছে.

উল্লেখ্য, ক্রিস বাকলি ১ দশকেরও বেশি সময় ধরে "নিউইয়র্ক টাইমস"  এর  চীনা প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করছেন. ২০১২ সালের অক্টোবরে চীনের প্রধানমন্ত্রী ওয়েন জিয়াবাওর পরিবারের অর্থ-সম্পত্তির ওপর তাঁর তৈরী করা এক তদন্ত প্রতিবেদন "নিউইয়র্ক টাইমস" পত্রিকায় প্রকাশ হয়. ওই সময় থেকেই চীনে পত্রিকাটির ওয়েবসাইট বন্ধ করে দেওয়া হয়. চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রনালয় বাকলিকে নিয়ে এ পরস্থিতির কোন মন্তব্য করতে রাজী হয় নি. সাংবাদিকের ভিসার মেয়াদ বাড়িয়ে দেওয়ার অনুরোধ জানিয়ে "নিউইয়র্ক টাইমস" এর পক্ষ থেকে চীনা সরকারের কাছে ইতোমধ্যে চিঠি পাঠানো হয়েছে. বাকলি বর্তমানে পরিবার নিয়ে হংকংয়ে অবস্থান করছেন.

প্রসঙ্গত, বিগত সময়ে চীনে বিভিন্ন বিদেশি পত্রিকার ওয়েবসাইট বন্ধ ও সাংবাদিকদের ভিসা না দেওয়া দেশটির সরকারের এক ধরণের নিয়মিত কাজে পরিণত হয়েছে. ২০১২ সালের জুন মাসে চীনে "ব্লুমবের্গ" সংস্থার ওয়েবসাইট বন্ধ করে দেওয়া হয় এবং ডিসেম্বরে "ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল" এর প্রতিনিধি ইয়ান জনসনের ভিসা দেয় নি দেশটির প্রশাসন.