জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ দক্ষিণ সুদানে রুশী হেলিকপ্টারকে ধ্বংস করার তীব্র নিন্দা করেছে ও দোষীদের প্রাপ্য শাস্তি দেওয়ার দাবী জানিয়েছে. নিরাপত্তা পরিষদের সভাপতি মহম্মদ লুলিচকি সাংবাদিকদের আজ এই কথা জানিয়েছেন. তিনি উল্লেখ করেছেন, যে এই ঘটনা ঐ এলাকায় পরিস্থিতি জটিলতর করে তুলবে. জাতিসংঘের সাধারন সম্পাদক বান কি মুনও দক্ষিণ সুদানের সেনাবাহিনীর দুষ্কর্মের সমালোচনা করে ঘটনাটির সরেজমিনে তদন্ত করার দাবী জানিয়েছেন, যাতে ভবিষ্যতে অনুরূপ ঘটনার পুণরাবৃত্তি না ঘটে.

শুক্রবার জাতিসংঘের শান্তিরক্ষা বাহিনীর হেলিকপ্টারটিকে দক্ষিণ সুদানের সামরিক বিমানবাহিনী গুলি করে ভূপাতিত করেছে. দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন ৪ জন রুশী পাইলট ও সহকারীরা. দক্ষিণ সুদানের সেনাবাহিনী দুর্ঘটনাটির জন্য নিরাপত্তা পরিষদের কাছে ক্ষমা চেয়েছে. ‘রিয়া নোভোস্তি’ সংবাদসংস্থাকে দক্ষিণ সুদানের সেনাবাহিনীর প্রতিনিধি জানিয়েছেন, যে ভুলক্রমে দুর্ঘটনাটি ঘটেছে, কারন জাতিসংঘের মিশন ঐ সময়ে ঐ এলাকায়, যেখানে বিদ্রোহীদের সাথে লড়াই চলছে, সেখানে কোনো হেলিকপ্টারের উড়ানের পরিকল্পনা সম্পর্কে আগেভাগে সতর্ক করে দেয়নি.

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রশাসনও দক্ষিণ সুদানে রাশিয়ার নাগরিকদের প্রাণহানি উপলক্ষ্যে রাশিয়াকে সমবেদনা জানিয়েছে. ওয়াশিংটনও সুদানের সরকারের কাছে দুর্ঘটনাটির তদন্ত করে দোষীদের প্রাপ্য সাজা দেওয়ার দাবী জানিয়েছে.