মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ২০২০ সাল নাগাদ প্রশান্ত মহাসাগর অঞ্চলে নিজের নৌবাহিনীর ৬০ শতাংশ পাঠাবে, পেন্টাগনের প্রধান লেওন পানেট্টার উদ্ধৃতি দিয়ে এ সম্বন্ধে জানিয়েছে মার্কিনী “স্টার্স অ্যান্ড স্ট্রাইপস” পত্রিকা.তাঁর কথায়, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় সামরিক বাজেট হ্রাস উপলক্ষে সৈন্য সংখ্যা ৫ লক্ষ ৭০ হাজার থেকে ৪ লক্ষ ৯০ হাজার পর্যন্ত কমাবে. নৌ-সৈনিকদের সংখ্যা ১ লক্ষ ৮২ হাজার কমানো হবে. একই সঙ্গে ওয়াশিংটন জাপানের ঘাঁটিগুলিতে মার্কিনী বিমানবাহিনীর নতুন আঘাত হানার শক্তি স্থাপন করবে. মার্কিনীরা জাপানের ঘাঁটিগুলিতে মোতায়েন করবে নতুন ফাইটার বিমান “এফ-২২” এবং কনভার্টোপ্লেন “এম.ভি-২২” “ওসপ্রে”. ২০১৭ সাল নাগাদ ইভাকুনি ঘাঁটিতে আঘাত হানার “এফ-৩৫” ফাইটার বিমান মোতায়েন করার কথা. নতুন সামরিক স্ট্র্যাটেজির কাঠামোতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র তাছাড়া সাইবারনেটিক যুদ্ধের প্রকৌশল বিকাশের জন্য সঙ্গতি নিয়োগ করবে. তাছাড়া, পেন্টাগন বিশেষ বাহিনীর সৈন্য সংখ্যা ৭২ হাজার পর্যন্ত বাড়াবে, উল্লেখ করেছে মার্কিনী সামরিক পত্রিকা.