তেহেরানে মনে করা হচ্ছে যে, সিরিয়ায় শান্তিপূর্ণ মীমাংসার সুযোগ এখনও রয়েছে. ইরানের উপ-পররাষ্ট্রমন্ত্রী হোসেইন আমীর আব্দোল্লাহিয়ান “রেডিও রাশিয়াকে” প্রদত্ত ইন্টারভিউতে বলেছেন যে, ইরানের দ্বারা সঙ্ঘর্ষের রাজনৈতিক মীমাংসার পরিকল্পনার এই হল উদ্দেশ্য. তাতে সিরিয়ায় অন্তর্বর্তী সরকার গঠন অনুমিত. এ প্রক্রিয়ায় দেশের আইনসঙ্গত রাষ্ট্রপতি হিসেবে বাশার আসদের অংশগ্রহণ করা উচিত্. জনসমাজের বিভিন্ন স্তরের প্রতিনিধিদের নিয়ে গঠিত এমন জন-সম্মতির সরকারে সেই সব বিরোধীও অন্তর্ভুক্ত হতে পারে, যারা বিগত সময়ে হত্যাকাণ্ডে জড়িত নয়, মনে করেন আমীর আব্দোল্লাহিয়ান. এইভাবে নতুন পার্লামেন্ট নির্বাচন এবং তার পরে রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের জন্য পূর্বশর্ত সৃষ্টি করা হবে. এজন্য সর্বপ্রথমে প্রয়োজন হিংসা থামানো এবং সশস্ত্র বিরোধী দলগুলির প্রতি বিদেশী সমর্থন বন্ধ করা. ইরানী উদ্যোগের মুখ্য বিষয় হল এই যে, সিরিয়ার লোকেদের নিজেদেরই সিদ্ধান্ত নেওয়া দরকার নিজেদের দেশের ভবিষ্যত্ সম্বন্ধে, জোর দিয়ে বলেন কূটনীতিজ্ঞ.