রাশিয়া ভারত থেকে আমদানীকৃত শস্যের উপর যে নিষিদ্ধ তালিকা আরোপ করেছে, সেই তালিকা আরও দীর্ঘতর হওয়ার সম্ভাবনা. এর কারন হতে পারে ‘খাপড়া পোকা’. ক্ষতিকর ঐ পোকার সংক্রামণের জন্য ১৭ই ডিসেম্বর থেকে ভারত থেকে চাল আমদানী করার উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে বলে ‘ইন্টারফ্যাক্স’ সংবাদসংস্থা জানিয়েছে.

“আমরা অনতিবিলম্বে ভারতীয়পক্ষের সাথে এই বিষয়ে আলোচনা করতে চাই. সেটার দরকার রাশিয়ায় ভারত থেকে সংক্রামিত শস্য পাঠানোর কারন জানার জন্য ও উদ্ভূত পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করে জট খোলার উদ্দেশ্যে” – বলেছেন রাশিয়ায় শস্যের উত্কর্ষতার মান নিয়ন্ত্রণকারী দপ্তর.

চাল ছাড়াও রাশিয়া ভারত থেকে আমদানী করে বিভিন্ন জাতের বাদাম, শুকনো ফল, মসলাপাতি ইত্যাদি. ‘খাপড়া পোকা’ ইতিপূর্বেও একাধিকবার নিষেধাজ্ঞা জারির কারন হয়েছিল. অনুরূপ নিষেধাজ্ঞা ভারতীয় চালের উপর আরোপ করা হয়েছিল ২০০৮-২০০৯ সালে.

গত কয়েক বছরের মধ্যে ভারত পোকামাকড়ে সংক্রামিত শস্য সরবরাহ করার দরুন রাশিয়ার বাজারে তার শীর্ষসারির রপ্তানীকারক দেশের ভূমিকা খুইয়েছে. ২০১১ সালে ভারত সবমিলিয়ে রাশিয়ায় মাত্র ৮৬০ টন চাল রপ্তানী করেছে. গত ৬ বছরের মধ্যে ২০০৬ সালে ভারত রেকর্ড পরিমান – প্রায় ৫০ হাজার টন চাল রাশিয়ার বাজারে বেচেছিল.

রাশিয়ার নিজস্ব চালের উত্পাদন বাড়ার কারনে আমদানীকৃত চালের পরিমান কমেছে. ২০১০ সালে, যখন রাশিয়া ২ লাখ ২৫ হাজার টন চাল আমদানী করেছিল বিদেশ থেকে, সেই অনুপাতে ২০১১ সালে বিদেশ থেকে আমদানী করা চালের পরিমান কমে দাঁড়িয়েছে ১ লাখ ৭৭ হাজার টনে.