গ্রীসের পররাষ্ট্রমন্ত্রক জানিয়েছে, যে এথেন্সে অবস্থিত সিরিয়ার রাষ্ট্রদূতাবাস থেকে সিরিয়ার রাষ্ট্রদূত ও আরও ২ জন কর্মীকে বহিস্কার করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে. এখন থেকে এথেন্সে সিরিয়ার কূটনীতি দপ্তর শুধু কনসালের পরিষেবা দেবে. সেইসাথেই গ্রীসের পররাষ্ট্রমন্ত্রক এই আশা প্রকাশ করেছে, যে শেষ অবধি বিচারবুদ্ধিরই জয় হবে ও মিত্র দেশটিতে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হবে. এথেন্সে এই আশাও করা হচ্ছে, যে যখন সিরিয়ার পরিস্থিতি দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের উন্নতি বাস্তবায়িত করার পক্ষে উপযুক্ত হবে, তখনই গ্রীস দামাস্কাসে পুরোমাত্রায় তার রাষ্ট্রদূতাবাসে কাজ পুণরায় শুরু করবে. সিরিয়ায় পরিস্থিতি ঘোরালো হয়ে ওঠার প্রেক্ষাপটে সেই জুন মাসে গ্রীস দামাস্কাসে তার রাষ্ট্রদূতাবাস বন্ধ করে দেয়.