পিয়ং-ইয়ং যে রকেট নিক্ষেপ করেছে, তা ‘দুর্বিনীত প্ররোচনা’, যা ‘ঐ এলাকায় নিরাপত্তার পক্ষে হুমকি’. বুধবার হোয়াইট হাউস থেকে প্রচারিত ঘোষনাপত্রে উপরোক্ত উক্তি করা হয়েছে. হোয়াইট হাউসের মুখপাত্র টনি উয়েটর বলেছেন, যে উত্তর কোরিয়ার প্ররোচনার সামনে আমেরিকা মাথা ঠান্ডা রেখেছে. ওয়াশিংটন পুরোমাত্রায় ঐ এলাকায় তার মিত্র দেশগুলির নিরাপত্তারক্ষার দায়িত্ব পালন করতে বদ্ধপরিকর.

উত্তর কোরিয়া জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের নির্দেশনামা অগ্রাহ্য করে ও বিশ্ব জনসমাজের আর্জিতে কর্ণপাত না করে স্যাটেলাইট সমেত ব্যালেস্টিক রকেট ছুঁড়েছে.

উত্তর আমেরিকার গগন-মহাকাশ প্রতিরক্ষার সদর দপ্তর পৃথিবীর কক্ষপথে উত্তর কোরিয় স্যাটেলাইটের পৌঁছানোর সংবাদ স্বীকার করেছে.

জাতিসঙ্ঘের সাধারন সম্পাদক বান কি মুনও এই ঘটনায় উত্তর কোরিয়ার নিন্দা করেছেন. তার ঘোষনায় বলা হয়েছে, যে রকেট নিক্ষেপ হচ্ছে ‘প্ররোচনামুলক কাজ’ ও ‘নিরাপত্তা পরিষদের নির্দেশনামাকে সরাসরি অগ্রাহ্য করা’.