রাশিয়া প্রবেশ করছে বিশ্বব্যাপী পরিবর্তন, আর হয়ত আলোড়নের যুগে. নতুন শতাব্দীর প্রথম ১২ বছর – দেশের সুদৃঢ় হয়ে ওঠার গুরুত্বপূর্ণ পর্যায় - অতিক্রান্ত হয়েছে. এ সম্বন্ধে আজ বলেছেন রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি ভ্লাদিমির পুতিন দেশের পরিস্থিতি এবং স্বরাষ্ট্র ও পররাষ্ট্র নীতির প্রধান প্রধান ধারা সম্পর্কে ফেডারেল সভার কাছে বার্ষিক বার্তায়. তাঁর কথায়, বর্তমানে প্রধান কর্তব্য হল – সমৃদ্ধ ও প্রস্ফুরিত রাশিয়ার গঠন. আর এ কর্তব্যের পালন নির্ভর করছে অগ্রগতির জন্য জাতির আকাঙ্ক্ষার উপর. পুতিন এ বার্তা পড়ে শোনাচ্ছেন ক্রেমলিনের গেওর্গি হলে প্রায় এক হাজার লোকের উপস্থিতিতে. পার্লামেন্ট সদস্যরা ছাড়া সেখানে উপস্থিত আছেন সরকারের সদস্যরা, প্রাদেশিক গভর্নররা, মুখ্য সব ধর্মীয় সম্প্রদায়ের প্রধানেরা, জনসমাজ ও প্রচার মাধ্যমের বিশিষ্ট প্রতিনিধিরা. পুতিন এ বক্তৃতা দিচ্ছেন সংবিধান দিবসে. এ সংবিধান গৃহীত হয়েছিল ১৯৯৩ সালে গণভোটের ফলাফলের ভিত্তিতে.