আন্তর্জাতিক পারমাণবিক শক্তি এজেন্সি ও ইরানের প্রতিনিধিদের মাঝে আলাপ-আলোচনার পরবর্তী রাউন্ড অনুষ্ঠিত হবে ১৩ই ডিসেম্বর তেহেরানে, জানিয়েছেন ইরানের উপ-পররাষ্ট্রমন্ত্রী সৈয়েদ আব্বাস আরাকচি. উপ-পররাষ্ট্রমন্ত্রীর কথায়, যা মঙ্গলবার উদ্ধৃত করেছে ইরানের প্রচার মাধ্যম, এটি হবে টেকনিক্যাল আলাপ-আলোচনা, যার উদ্দেশ্য হল দ্বিপাক্ষিক সহযোগিতার কাঠামো ও পরিকল্পনা প্রণয়ন করা. এজেন্সিতে ইরানের প্রতিনিধি আলি আসগর সলতানিয়ে বলেছেন যে, “তেহেরানে আলাপ-আলোচনার সাফল্য নির্ভর করছে তাতে রাজনৈতিক সোর গোলও চেঁচামেচি মুক্ত শান্ত পরিবেশ গঠিত হবে কি না তার উপরে”. গত সপ্তাহের শেষে এজেন্সির প্রধান ইউকিয়া আমানো স্বীকার করেন যে, বিগত বছরে এজেন্সির পরিদর্শকরা এ বিষয় স্পষ্ট করতে পারেন নি যে, ইরান পারমাণবিক অস্ত্র তৈরীর ক্ষেত্রে গবেষণা চালিয়েছে কি না. গত বছরের নভেম্বরে এজেন্সি জানিয়েছিল যে, গোয়েন্দা তথ্য অনুযায়ী, ইরান গবেষণা চালিয়েছিল, যা পারমাণবিক বোমা তৈরীতে সাহায্য করতে পারে. তেহরান তা অস্বীকার করেছে. এজেন্সির পরিদর্শকরা তাছাড়া পারচিনে সামরিক প্রকল্পে যাওয়ার চেষ্টা করছে, যেখানে অনুমান করা হচ্ছে যে, পারমাণবিক গবেষণা চালানো হয়েছিল. আগে এজেন্সিতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধি রবার্ট উড তেহেরানকে মার্চ মাস পর্যন্ত সময় দিয়েছেন রাষ্ট্রসঙ্ঘের সাথে সহযোগিতা শুরু করার জন্য. অন্যথায়, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ইরানের প্রশ্ন রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদে আলোচনার জন্য উত্থাপন করার চেষ্টা করবে.