ইরান মেহর নামক সাইট চালু করেছে, যেখানে ব্যবহারকারীরা ভিডিও অন-লোড করার ও দেখার সুযোগ পাচ্ছে, যা তারা নিজেরাই তুলেছে. তাছাড়া তারা আইরিব নামক জাতীয় সম্প্রচারন চ্যানেলে রেকর্ড করা সবকিছুও দেখতে পারে. “সঠিক” রিসোর্স চালু করা হয়েছে YouTube-এর বিকল্প হিসাবে, যাকে ইরানে সেই ২০০৯ সালেই “নোংরা” বলে অভিহিত করা হয়েছিল. ইরানে বহু কষ্টেসৃষ্টে ইন্টারনেটের প্রসার ঘটছে. ২০০৯ সালে রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে মাহমুদ আহমাদিনেজাদ জয়লাভ করার পরেই Facebook, Twitter ও YouTube ব্লক করে দেওয়া হয় ইরানে. রাষ্ট্রপতি শুধুমাত্র পাশ্চাত্যের অন্যান্য সব রিসোর্স ব্লক করে দেওয়ার হুমকি দিয়েই ক্ষান্ত হননি, উপরন্তু ২০১৩ সাল থেকেই দেশের নাগরিকদের ইন্টারনেট সাইটে সমস্ত অনলাইন কার্যকলাপের উপর নিয়ন্ত্রণ কায়েম করার পরিকল্পনা করেছেন.