অসাধারণ ঠাণ্ডা পড়েছে পূর্ব ও মধ্য ইউরোপের দেশগুলিতে. সবচেয়ে কঠিন অবস্থা বলকান অঞ্চলের দেশগুলিতে. সেখানে তিরিশ ঘন্টা ধরে তুষার-পাতের ফলে রাস্তা অবরুদ্ধ হয়েছে, বিদ্যুত্ সরবরাহের লাইন ছিঁড়ে গেছে এবং বহু অঞ্চল বিদ্যুত্শক্তি থেকে বঞ্চিত. উদ্ধার-কর্মীরা রাস্তায় আটকে যাওয়া মোটরগাড়ি থেকে প্রায় ৭০০ জনকে অপসারণ করেছে. সাঁজোয়া গাড়ি ব্যবহৃত হয়েছে – বড় বড় ট্রাক রাস্তা থেকে সরানো হয়েছে ট্যাঙ্কের সাহায্যে. সার্বিয়ার রাস্তায় আটকে পড়া গাড়িতে জন্মগ্রহণ করেছে একটি সুস্থ মেয়ে. তার নাম দেওয়া হয়েছে স্নেঝানা (তুষার কণা). ইউরোপের আকাশেও পরিস্থিতি জটিল. ভীষণ তুষার-পাতের জন্য বহু বিমান-যাত্রা বাতিল করা হয়েছে, আমস্টারড্যাম, ফ্রাঙ্কফুর্ট-অন-মাইন, ডুসেলডর্ফ এবং প্যারিসের দুটি বিমানবন্দরে –ওর্লি এবং “শার্ল দে গল” বিমানবন্দরে কাজ কঠিন হয়ে পড়েছে.দ্রুতগামী ট্রেনগুলিকে থামিয়ে দেওয়া হয়েছে. এই খারাপ আবহাওয়ার ফলে বেশ কিছু জীবন হানিও হয়েছে. প্রধাণত তারা গৃহহীন. রাতে তাপমাত্রা নেমে যাচ্ছে মাইনাস ২৭ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেড, তাই রক্ষা পাওয়ার সম্ভাবনা কমই.