চেখের সংসদ প্রেসক্রিপশন দেখে ঔষধালয়গুলিকে মারিজুয়ানা বিক্রয় করার অনুমতি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে. যেমন খোদ মারিজুয়ানা, তেমনই এমন সব ওষুধ, যার মধ্যে মারিজুয়ানা আছে, তা কেনা যাবে. নতুন বছর থেকে আইন চালু হবে. ২০১৩ সালে কেবলমাত্র বিদেশ থেকে আমদানী করা মারিজুয়ানা বিক্রয়ের অনুমতি দেওয়া হলেও পরবর্তীতে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণের ইউরোপীয় সরকারী ইনস্টিটিউটের কাছ খেকে লাইসেন্স পেয়ে দেশেই মারিজুয়ানা উত্পাদন করা যাবে. চেখে মাদকদ্রব্য বিরোধী আইন আগেই দেশে মারিজুয়ানা চাষ করার অনুমতি দিলেও, এতদিন তা বিক্রি করা নিষিদ্ধ ছিল. আইনটির খসড়ার অন্যতম একজন সংকলকের কথায় – আইনটি রোগীদের মারিজুয়ানা কেনার সুযোগ দেবে, যাদের জন্যে এটা অপরিহার্য ও তারা বেআইনি ভাবে হলেও এখনো তা ব্যবহার করে. বিশ্বে মারিজুয়ানা হচ্ছে সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত মাদকদ্রব্য. অংশত, ক্যান্সারাক্রান্ত রোগীদের বেদনা হ্রাস করার জন্য ঐ ড্রাগস প্রয়োগ করা হয়ে থাকে.