0রাশিয়ায় দূর্নীতির ঘটনা সম্পর্কে শুরু করা শেষ তদন্তগুলি দেশে দূর্নীতি উচ্ছেদের কঠিন কাজের সূচনা মাত্র, শুক্রবার বলেছেন রাশিয়ার প্রধানমন্ত্রী দমিত্রি মেদভেদেভ. রাশিয়ার টেলি-চ্যানেলগুলিকে প্রদত্ত ইন্টারভিউতে তিনি উল্লেখ করেন যে, এ কাজ শুধু প্রতিধ্বনি তোলা ব্যাপারগুলিতেই সীমিত থাকবে না. সেই সঙ্গে তিনি জোর দিয়ে বলেন যে, বর্তমানের দূর্নীতি-বিরোধী মামলাগুলি বিগত কয়েক বছরে যা করা হয়েছে তরই “প্রত্যক্ষ ক্রমানুবর্তন”. তিনি মনে করিয়ে দেন যে, দেশে দূর্নীতি-বিরোধী আইনবিধি গঠিত হয়েছে, আর রাষ্ট্র আন্তর্জাতিক দূর্নীতি-বিরোধী কনভেনশনে যোগ দিয়েছে. মেদভেদেভ জোর দিয়ে বলেন যে, সেই সঙ্গে অনেকেরই মনে হয়েছিল যে এটা – “আচার-গত বিষয়”. “মোটেই না – এ ক্ষেত্রে সংখ্যাগত মান আগে হোক পরে হোক গুণগত মানে উত্তীর্ণ হবে”. জানানো হয়েছিল যে, ২০১২ সালের হেমন্তে রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ে চুরি সংক্রান্ত দূর্নীতির বড় কয়েকটি ঘটনা উন্মোচিত হয়েছিল. তাছাড়া, বড় বড় রাষ্ট্রীয় কর্মসূচি পুরণের জন্য নির্দেশিত বাজেটের অর্থের বাজে-খরচের ঘটনাও জানা গেছে. এ সব অপব্যবহারের ঘটনার তদন্ত চালানো হচ্ছে.