রাশিয়ার ‘গ্যাসপ্রোম’ ও চীনের সি.এন.পি.সি. রাশিয়া থেকে চীনে ‘আলতাই’ নামক গ্যাসের পাইপলাইন নির্মানের ব্যাপারে তাদের আগ্রহ আরও একবার ব্যক্ত করেছে. ‘গ্যাসপ্রোমে’র সিইও আলেক্সেই মিলার ও সি.এন.পি.সি.র প্রধান ঝৌ জিপিনের মধ্যে সাক্ষাত্কারের পরে রুশী পক্ষ পারস্পরিক লাভজনক প্রকল্প রূপায়নের বিষয়ে সংলাপ চালিয়ে যাওয়ার দ্বিপাক্ষিক সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছে. তাছাড়াও পক্ষদ্বয় শক্তির ক্ষেত্রে পারস্পরিক সহযোগিতার বর্তমান হাল নিয়েও মতবিনিময় করেছে.

দুই পক্ষের মধ্যে দীর্ঘমেয়াদী সহযোগিতার চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছিল ২০০৪ সালের ১৪ই অক্টোবর. ঐ চুক্তিতে রাশিয়া থেকে চীনে প্রাকৃতির গ্যাস সরবরাহের প্রসঙ্গও আছে. তাছাড়াও ঐ চুক্তিমাফিক রাশিয়ার পূর্বাঞ্চলে ও বিভিন্ন তৃতীয় দেশে গ্যাসশোধনের ও গ্যাসরসায়নের ক্ষেত্রে যৌথ প্রকল্পাবলী গড়ার সম্ভাবনা নিয়ে গবেষণা করার কথাও উল্লিখিত ছিল. ২০০৯ সালের ডিসেম্বর মাসে রাশিয়া থেকে চীনে গ্যাস সরবরাহের প্রশ্নে বুনিয়াদি মুখ্য সব শর্তে স্বাক্ষর করা হয়েছিল.

‘আলতাই’ প্রকল্পের আওতায় রাশিয়া ও চীনের দুদেশীয় সীমান্তের পশ্চিমভাগের মধ্যে দিয়ে পশ্চিম সাইবেরিয়া থেকে নিস্কাষিত প্রাকৃতিক গ্যাস চীনে পাঠানোর চিন্তাভাবনা করা হয়. শুধুমাত্র চীনা পক্ষের তরফ থেকে কেনা-বেচার চুক্তি স্বাক্ষরির হওয়ার পরেই ‘আলতাই’ নামক গ্যাসের পাইপলাইন নির্মানের কাজ শুরু হবে.