সিরিয়ার নেতৃত্বে কে থাকবে, কিছু কিছু দেশের দ্বারা তা মীমাংসার চেষ্টা অগ্রহণীয় বলে মনে করেন রাশিয়ার প্রধানমন্ত্রী দমিত্রি মেদভেদেভ. ফ্রান্সের “ফ্রান্স প্রেস” সংবাদ এজেন্সি এবং “ফিগারো” পত্রিকাকে প্রদত্ত ইন্টারভিউতে প্রধানমন্ত্রী মনে করিয়ে দেন যে, সিরিয়ার বর্তমান রাষ্ট্রপতি বাশার আসদের ভাগ্য মীমাংসা করা উচিত্ খাস সিরিয়ার জনগণেরই. মেদভেদেভ তাছাড়া মনে করেন ফ্রান্সের স্থিতি অতি বিতর্কমূলক এবং বিধানিকভাবে অগ্রহণীয়, যে সিরিয়ায় বিরোধী কোয়ালিশন-কে ন্যায়সঙ্গত বলে স্বীকৃতি দিয়েছে এবং কোয়ালিশন-কে অস্ত্র সরবরাহের পক্ষে মত প্রকাশ করছে. রাশিয়ার সরকারের নেতা উল্লেখ করেন, তবে “এটা ফ্রান্সের আভ্যন্তরীন ব্যাপার”.তিনি বলেন, তবুও আন্তর্জাতিক বিধানের মূলনীতি অনুযায়ী, কোনো দেশের এমন ক্রিয়াকলাপ চালানো উচিত্ নয়, যা অন্য কোনো দেশে রাজনৈতিক শাসন ব্যবস্থা জোর করে পরিবর্তনের জন্য নির্দেশিত. মেদভেদেভ জোর দিয়ে বলেন যে, রাশিয়া যেমন সিরিয়ার কর্তৃপক্ষের তেমনই বিরোধীপক্ষের হিংসাত্মক ক্রিয়াকলাপের নিন্দে করে. তিনি উল্লেখ করেন যে, সিরিয়ার সঙ্কট মীমাংসা করা দরকার আলাপ-আলোচনার পথে. মেদভেদেভ আরও বলেন যে, রাশিয়া ও সিরিয়ার সামরিক-প্রযুক্তিগত সহযোগিতা অতি সীমিত চরিত্রের, তা সম্পূর্ণভাবে বিধিসঙ্গত এবং আন্তর্জাতিক বিধানের পরিপন্থী নয়. তিনি বিশেষ জোর দিয়ে বলেন যে, রাশিয়া সরবরাহ বন্ধ করবে, যদি আন্তর্জাতিক নিষেধাজ্ঞা প্রবর্তিত হয়. দৃষ্টান্ত হিসেবে তিনি ইরানের কথা উল্লেখ করেন, যেখানে রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, নির্দিষ্ট ধরণের রাশিয়ার অস্ত্রসজ্জা সরবরাহ করা বন্ধ করা হয়েছে.