সিরিয়ায় শান্তি আসবে না, যতদিন কয়েকটি দেশ রাষ্ট্রপতি বাশার আসদের অবিলম্বে পদত্যাগের দাবি করবে এবং বিদ্রোহীদের অস্ত্র সরবরাহ করবে, মনে করেন রাশিয়ার প্রধানমন্ত্রী দমিত্রি মেদভেদেভ. হেলসিঙ্কি সফরের প্রাক্কালে ফিনল্যান্ডের প্রচার মাধ্যমকে প্রদত্ত ইন্টারভিউতে মেদভেদেভ উল্লেখ করেন যে, রাশিয়ার স্থিতি সকলে ভালই জানে: মস্কো এ সঙ্ঘর্ষের কোনো একটি পক্ষকে সমর্থন করছে না – বিরোধীপক্ষকে নয়, রাষ্ট্রপতি আসদ-কে নয়, এবং প্রচারিত ধারণা সত্ত্বেও বিদ্রোহীদেরও নয়. একমাত্র, রাশিয়া যা সঙ্ঘর্ষরত পক্ষগুলিকে আহ্বান জানাচ্ছে তা হল, - হিংসা বন্ধ করে আলাপ-আলোচনার টেবিলে বসার. মেদভেদেভ বলেন, “তবে, দুঃখের বিষয় যে, কয়েকটি রাষ্ট্রের স্থিতি অনেকটা একতরফা – এক পক্ষের অবিলম্বে সরে যাওয়া উচিত্ আর অন্য পক্ষকে আমরা অস্ত্র সরবরাহ করব. আমরা মনে করি যে, তা ঠিক নয়, আমরা মনে করি যে, এইভাবে সিরিয়ার মাটিতে শান্তি কখনও আসবে না”. রাশিয়ার প্রধানমন্ত্রী খতিয়ান টেনে বলেন, “নয় তো, অবশেষে, এ রাষ্ট্র বিভাজিত হয়ে যাবে, যেমন এ ধরণের দৃষ্টান্ত রয়েছে আফ্রিকার উত্তরাঞ্চলে. বিগত দু বছরে নিকট প্রাচ্যে ও আফ্রিকার উত্তরাঞ্চলে যে সব ঘটনা ঘটেছে, তা মোটেই শান্তি ও স্বস্তি আনে নি”.