প্রতিরক্ষা মন্ত্রী টমাস ডে মাজিয়ের তাঁর আফগানিস্তান সফরের সময়ে এই কথা বলেছেন, তিনি আরও বলেছেন যে, জার্মানীর সরকার ন্যাটো জোটের সঙ্গে ঠিক করবে, কি ধরনের সামরিক প্রযুক্তি ও অস্ত্র সেনা বাহিনী প্রত্যাহারের পরে আফগানিস্তানে প্রশিক্ষণের জন্য রেখে যাওয়া হবে. ২০১৪ সালের শেষের মধ্যে জোটের সৈন্য বাহিনী সরে যাবে বলে জোটের সহযোগীরা ঠিক করেছে, তার পরে দেশের নিরাপত্তার দায়িত্ব নেবে আফগানিস্তানের সেনা বাহিনী. বর্তমানে আফগানিস্তানে চার হাজার আটশো জার্মান সেনা রয়েছে – এটা ন্যাটো জোটের হয়ে লড়াই করতে যাওয়া মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও গ্রেট ব্রিটেনের পরে সংখ্যার দিক থেকে তৃতীয় বাহিনী.