সিরিয়ার বিরোধীপক্ষের পশ্চিমী পৃষ্ঠপোষকদের দ্বারা সিরিয়ার ভবিষ্যত্ নেতৃবৃন্দে বাইরে থেকে নামের তালিকাচাপিয়ে দেওয়ার চেষ্টা জেনেভা সমঝোতার পরিপন্থী. এ সম্বন্ধে নিজের “টুইটারে” লিখেছেন রাশিয়ার উপ-পররাষ্ট্রমন্ত্রী গেন্নাদি গাতিলোভ. রাশিয়ার কূটনীতিজ্ঞ মনে করিয়ে দেন যে, সিরিয়া সম্পর্কে জেনেভা বিবৃতিতে বলা হয়েছে : “অন্তর্বর্তী পরিচালনাকারী সংস্থা গঠিত হওয়া উচিত্ সরকার ও বিরোধীপক্ষের পারস্পরিক সম্মতির ভিত্তিতে”. আগে জানানো হয়েছিল যে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সিরিয়ার জাতীয় পরিষদের বদলে সিরিয়ার বিরোধীপক্ষের নতুন ঐক্যবদ্ধ সংস্থা গঠনের ধারণা প্রস্তাব করতে চায়. সিরিয়ার জাতীয় পরিষদকে ওয়াশিংটনে এখন অ-ফলপ্রসূ বলে মনে করা হচ্ছে. পরে মার্কিনী পররাষ্ট্র সচিব হিলারী ক্লিন্টন ব্যাখ্যা করে বলেন যে, ওয়াশিংটন ইতিমধ্যে সিরিয়ার বিরোধীপক্ষের নেতৃবৃন্দের তালিকা প্রস্তুত করেছে, যাদের হোয়াইট হাউজের মতে, এ সংস্থার অন্তর্ভুক্ত করা উচিত্. বিশেষ করে, জানানো হয়েছিল যে, নেতৃ-পদের প্রার্থী-তালিকায় সিরিয়ার প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী রিয়াদ হিজাবের নাম করা হয়েছিল, যিনি আগস্ট মাসে সিরিয়া ত্যাগ করেন. অনুমান করা হচ্ছে যে, “জাতীয় উদ্যোগী পরিষদ” গঠনের কথা ঘোষণা করা হবে ৭ই নভেম্বর, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের পরের দিনই. প্রচার মাধ্যমগুলির তথ্য অনুযায়ী, মার্কিনী প্রশাসন নতুন পরিষদকে সম্ভাব্য অন্তর্বর্তী সরকার হিসেবে বিবেচনা করছে, যা যেমন আন্তর্জাতিক জনসমাজ তেমনই সিরিয়ার শাসন ব্যবস্থার সাথে আলাপ-আলোচনা চালাতে সক্ষম হবে.