চীনে মার্কিনী রাষ্ট্রদূত গ্যারি লক চীনা কর্তৃপক্ষের কাছে দাবি করেছেন তিব্বতীদের সম্পর্কে তার নীতি পুনর্বিবেচনার দাবি করেছেন, জানিয়েছে পশ্চিমী প্রচার মাধ্যম. মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র চীনকে অনুরোধ করেছে তার নীতির কিছু ধারা পুনর্বিবেচনা করার, যা সীমিতকরণ প্রবর্তনের জন্য নির্দেশিত, কারণ তা প্রতিরোধ জাগায় এবং লোকে আত্মাহূতি দেয়. মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে অনুষ্ঠিত তিব্বত সম্পর্কে ইন্টারঅ্যাক্টিভ সম্মেলনে অংশগ্রহণ করে তিনি এ কথা বলেন. রাষ্ট্রদূত এর প্রাক্কালে তিব্বতী অধ্যুষিত চীনের দক্ষিণ-পশ্চিমে সিচুয়ান প্রদেশ সফর করেন এবং তিনি বলেন যে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র হিংসা ও আত্মাহূতির ঘটনায় গুরুতরভাবে উদ্বিগ্ন, যা বিগত কয়েক বছরে দেখা যাচ্ছে. পশ্চিমী প্রচার মাধ্যমের তথ্য অনুযায়ী, ২০০৯ সাল থেকে ৬০ জন তিব্বতী, প্রধাণত বৌদ্ধ সন্যাসী বেজিংয়ের নীতির বিরুদ্ধে প্রতিবাদ স্বরূপ আত্মাহূতি দিয়েছে. মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র জোর দিচ্ছে, যাতে চীনা কর্তৃপক্ষ বিশ্বের বৌদ্ধদের প্রধান দালাই লামার সাথে আলাপ-আলোচনা করেন. বেজিংয়ে তাঁকে মনে করা হয় শুধু ধর্মীয় কর্মীই নয়, রাজনৈতিক ব্যক্তিও, যিনি বিচ্ছিন্নতাবাদী কার্যকলাপ চালাচ্ছেন, যাঁর উদ্দেশ্য তিব্বতকে চীন থেকে পৃথক করার. ওয়াশিংটন নিয়মিত বেজিংয়ের বিরুদ্ধে অভিযোগ তোলে চীনে তিব্বতী অধিবাসীদের রাজনৈতিক ও ধর্মীয় অধিকার লঙ্ঘন করার.