রাশিয়ার ৭৭টি অঞ্চলে গত ১৪ অক্টোবর অনুষ্ঠিত বিভিন্ন পর্যায়ের নির্বাচনের চুড়ান্ত ফলাফল এ সপ্তাহে ঘোষণা করা হয়েছে. পার্টি নিবন্ধন সংক্রান্ত নতুন আইন অনুমোদনের পরই এ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হল. তাই এবারের আঞ্চলিক নির্বাচনে স্বাভাবিকভাবেই পার্টির সংখ্যাও অনেক বেশী ছিল. রাষ্ট্রবিজ্ঞানীদের মতে, যা রাজনৈতিক প্রতিযোগিতা হ্রাস করেছে.

একযোগে অনুষ্ঠিত হওয়া ওই নির্বাচন বলা যেতে পারে যা পুরো রাশিয়াকেই ছুঁয়ে গেছে. ৭৭টি অঞ্চলে ৫ হাজারেরও বেশী বিভিন্ন পর্যায়ের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়. সিটি কর্পোরেশনের কমিশনার ও মেয়রের পদ থেকে গভর্নর পর্যন্ত নির্বাচন এর মধ্যে ছিল. এমনকি গত প্রায় ৮ বছরের মধ্যে এবারই প্রথম জনগনের সরাসরি ভোটে আঞ্চলিক গভর্নর নির্বাচন করা হয়েছে. এর আগে স্থানীয় পার্লামেন্টের অনুমতি নিয়ে রাষ্ট্রপতি গভর্নর নির্বাচন করতেন. এবারের আঞ্চলিক নির্বাচনের ফলাফল সম্পর্কে অনেকটা পূর্বেই ধারণা পাওয়া যায়. বিভিন্ন অঞ্চলের গভর্নর পদে নির্বাচিত হয়েছেন ক্ষমতাসীন ইউনাইটেড রাশিয়া দলের প্রার্থীরা. এ সম্পর্কে নিজের মতামতে রুশ রাষ্ট্রপতি ভ্লাদিমির পুতিন বলেন, “আমার জন্য নির্বাচনের ফলাফলে অবাক হওয়ার কিছুই নেই. আমি মনে করে, বর্তমান দায়িত্বপ্রাপ্ত রাজনৈতিক দলের জন্য জনগনের আস্থার এটি পূনঃমূল্যায়ন. আমি আবারও নির্বাচিত প্রতিনিধিদের সাথে সাক্ষাত করব এবং তাদের স্মরণ করিয়ে দিব যে, জনগন তাদের কাছ থেকে অনেক বেশী গঠনমূলক কাজ ও ভাল সুফলের আশা করছে. আমি আশা করছি, যারা বিজয়ী হয় নি তাদের জন্যও ঘোষণা থাকবে. আশার কথা যে, বিরোধী দলের পক্ষ থেকেও অনেক প্রার্থী নির্বাচনে অংশ নিয়েছেন”.

গত মার্চ মাসে রাশিয়ায় রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে পর্যবেক্ষকরা যেমন নির্বাচনী কেন্দ্র থেকে যেভাবে ইন্টারনেটে সরাসরি ভিডিও চিত্র দেখতে পেয়েছিলেন, ঠিক আঞ্চলিক নির্বাচনেও অনুরুপ ব্যবস্থা করা হয়. তাছাড়া পুরো নির্বাচন পর্যবেক্ষণে ছিলেন কয়েক হাজার রুশী ও বিদেশী পর্যবেক্ষক. এরা সবাই নির্বাচনকে অবাধ ও সুষ্ঠ বলে ঘোষণা করেছেন. ফ্রান্স থেকে আসা এক সাংবাদিক রেডিও রাশিয়াকে বলেন, “যে কয়েকটি নির্বাচনী কেন্দ্র আমি পরিদর্শন করেছি সেখানে কোন প্রকার অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়াই সুষ্ঠভাবে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে. শুধু তাই নয়, বিরোধী দলের পক্ষ থেকে যারা পর্যবেক্ষক হিসেবে ভোটকেন্দ্রে উপস্থিত ছিল তারাও কোন প্রকার অভিযোগ করে নি”.

রাশিয়ায় রাজনৈতিক দলসমূহের নিবন্ধনের প্রক্রিয়া সহজ করাই এবারের আঞ্চলিক নির্বাচনে কয়েকশ পার্টি অংশ নিতে পেরেছে. ইউনাইটেড রাশিয়ার অনেক বিরোধীরা নির্বাচনে নিজেদের সাফল্য নিয়ে খুব আশাবাদী ছিলেন. কিন্তু ঘটেছে তার বিপরীত. ২০১১ সালে পার্লামেন্ট নির্বাচনে ইউনাইটেড রাশিয়া পেয়েছিল প্রায় ৫০ ভাগ ভোট কিন্তু আঞ্চলিক নির্বাচনে প্রায় সবকটি স্থানীয় গভর্নর নির্বাচিত হয়েছেন ক্ষমতাসীন দলের প্রতিনিধিরা.