0বেজিংয়ে সোমবার প্রয়াত কম্বোজের রাজা নরোদম সিহানুকের দেহ বিশেষ বিমানে রাজধানী নমপেনে আনা হয়েছে, বুধবার জানিয়েছে “বি.বি.সি” টেলি-রেডিও কর্পোরেশন. বিমানবন্দর থেকে রাজপ্রাসাদ অবধি পথে এক লক্ষেরও বেশি লোক দাঁড়িয়েছিল, জানিয়েছেন কম্বোজ সরকারের প্রতিনিধি. অনুমান করা হচ্ছে যে, সিহানুকের দেহ আগামী তিন মাস রাজপ্রাসাদে রাখা থাকবে. ইচ্ছুক যে-কেউ দেশের ইতিহাসে এই বিশিষ্ট ব্যক্তির প্রতি শেষ শ্রদ্ধা নিবেদন করতে পারে. বৃহস্পতিবার থেকে কম্বোজে সরকারীভাবে এক সপ্তাহের শোক ঘোষণা করা হয়েছে. বেসরকারী তথ্য অনুযায়ী, সিহানুকের হৃদরোগ ছিল, তাছাড়া, তাঁর ক্যান্সার এবং ডায়াবেটিস রোগও নির্ণয় করা হয়েছিল. নরোদম সিহানুক কম্বোজের রাজা হন ১৯৪১ সালে ১৮ বছর বয়সে. দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পরে তিনি ফ্রান্সের কাছ থেকে স্বাধীনতার জন্য কম্বোজবাসীদের সংগ্রামের নেতৃত্ব করেন এবং স্বাধীনতা অর্জন করেন ১৯৫৩ সালে. ১৯৫৫ সালে তিনি রাজ-সিংহাসনের অধিকার ত্যাগ করেন, প্রধানমন্ত্রী হন, আর তারপরে কম্বোজের রাষ্ট্রপতি হন. ১৯৯৩ সালে তিনি আবার রাজ-সিংহাসনে আসীন হন, আর ২০০৪ সালের ৬ই অক্টোবর স্বাস্থ্যের অবনতির জন্য নিজের পদের দায়িত্ব অর্পণ করেন ছোট পুত্র নরোদম সিয়ামোনি-কে. দেশে তাঁকে “জাতির পিতা” বলে, আধুনিক স্বাধীন কম্বোজের প্রতিষ্ঠাতা বলে মনে করা হয়.