0এই সোমবার থেকেই খাদ্য রসিকদের মন রাখার জন্য মস্কো শহরে নিজেদের দরজা খুলে ধরছেন অষ্টম বারের মতো এক মাস ব্যাপী খাদ্য রসিক উত্সবে মস্কো শহরের ৫০টি সারা শহর জুড়ে শাখা প্রশাখা ছড়ানো রেস্তোরাঁ. উত্সব আয়োজক কমিটির প্রধান ইগর গুবেরনস্কির কথামতো, বেশীর ভাগ রেস্তোরাঁ এই বারে দুটি খাবারের বিলের ব্যবস্থা করেছে, একটি দেড় হাজার রুবলের ও অন্যটি তিন থেকে চার হাজার রুবলের. কম দামের বিল দিলেও রেস্তোরাঁ কি ধরনের খাদ্য পরিবেশন করে ও তাদের পরিষেবা কি রকমের তা মূল্যায়ণ করতে কোনও অসুবিধা হবে না. “অ্যাসেন্টি”, “অন্ত্রেকোত”, “বাবা মার্তা”, “বালচুগ”, “বোনো”, “সোহো”, “বোচকা”, “ভাত্রুশকা”, “গাস্ত্রোনোম”, “ক্যাপ্রি”,মিস্টি খাবারের দোকান “পুশকিন”, “অদূর প্রাচ্য” ইত্যাদি নামী রেস্তোরাঁ এই উত্সবে অংশ নিচ্ছে. তাছাড়া ৩১শে অক্টোবর “বালচুগ কেম্পিনস্কি” হোটেলের “বালচুগ” রেস্তোরাঁয় আয়োজন করা হচ্ছে “সোনার ত্রিভুজ” নামে ঐতিহ্যবাহী সান্ধ্য ভোজ. এই বছরে এখানে খাবার তৈরী করবেন তিনজন খুবই প্রতিভাধর খানসামা – লুইজি তালিয়েতি, যাঁকে ইতালির সেরা যুব খানসামা উপাধি দেওয়া হয়েছে ও যিনি এই রেস্তোরাঁর শেফ, যাঁর কীর্তিকে দুটি “ত্রুসার্দি আল্যা স্কালার” “মিশেলিন” তারকা দিয়ে সম্মান জানানো হয়েছে, ইংরেজ মার্ক ফশ, যিনি মাইওরকা দেশে নিজের নামে একটি রেস্তোরাঁর মালিক ও যাঁকে দেওয়া হয়েছে একটি “মিশেলিন” তারকা, আর দিমিত্রি শুরশাকভ, যিনি “চাইকা” নামের রেস্তোরাঁয় শেফ, যেটি বিশ্বের সেরা একশ রেস্তোরাঁর তালিকায় রয়েছে. ১৩ই নভেম্বরে বিজয়ীদের বালচুগ কেম্পিনস্কি হোটেলে এক সান্ধ্যভোজের পরে বল ড্যান্সের সময়ে পুরস্কার অর্পণ অনুষ্ঠান দিয়ে এই উত্সব ঐতিহ্য মেনেই শেষ করা হবে.