আহত পাকিস্তানী মেয়ে মালালা ইউসুফজাই-এর সুস্থ হয়ে ওঠার সুন্দর সম্ভাবনা আছে. এ সম্বন্ধে বলেছেন বার্মিংহ্যাম হাসপাতালের ডাক্তাররা, যেখানে ১৪ বছর বয়সী পাকিস্তানী মেয়েটিকে ভর্তি করা হয়েছে. মেয়েটিকে হত্যার চেষ্টা করা হয়েছিল ৯ই অক্টোবর সোয়াত নদীর উপত্যকায় মিঙ্গোরা শহরে.সন্ত্রাসবাদীরা স্কুলের বাসে গুলি চালিয়েছিল, যাতে ছিল মালালা এবং তার ক্লাসের মেয়েরা. মেয়েটির গুলি লেগেছিল মাথায় এবং ঘাড়ে. অপরাধীরা পালাতে সক্ষম হয়. এ আক্রমণের জন্য দায়িত্ব গ্রহণ করেছে পাকিস্তানের চরমপন্থী তালিবদের “তেহরিক-ই-তালিবান পাকিস্তান” আন্দোলন. ইউসুফজাই পাকিস্তানে খ্যাতি অর্জন করেছে ইন্টারনেট ব্লগে সোয়াত উপত্যকায় ২০০৯ সালে যে সব ঘটনা ঘটেছিল তার বর্ণনার জন্য, সেখানে তালিবরা শরিয়তের কঠোর নিয়ম প্রবর্তন করেছিল, তাতে মেয়েদের শিক্ষা লাভ নিষিদ্ধ ছিল.