ইরানের বিমানবাহিনীতে নতুন “হাআজেম”(“দৃঢ সঙ্কল্প”) মার্কা ড্রোন বিমান যুক্ত হয়েছে. ইস্লামিক বিপ্লবের রক্ষী বাহিনীর জেনারেল ফর্জাদ ইস্মাইলী-র কথায়, এটি – বহু কর্তব্য সাধনের সরঞ্জাম, যা বিশাল দূরত্বে কাজ করতে এবং যেমন আকাশে তেমনই মাটিতে লক্ষ্যস্থল ভেদ করতে সক্ষম. গত মাসের শেষ দিকে ইরানে “শহিদ-১২৯” মার্কা ড্রোন বিমান দেখানো হয়েছিল, যা সামরিক ক্রিয়াকলাপ এবং গোয়েন্দা কাজকর্ম চালানোর জন্য নির্দেশিত. এ বিমান আকাশে ২৪ ঘন্টা থাকতে পারে এবং ২০০০ কিলোমিটার দূরত্বে লক্ষ্য ভেদ করতে সক্ষম. স্বাধীন বিশেষজ্ঞদের মতে, এ ধরণের ড্রোন বিমানের উদ্ভব এ ব্যাপারের সাথে জড়িত যে, গত বছরে ইস্লামিক প্রজাতন্ত্রের আকাশ প্রতিরক্ষা বাহিনী মার্কিনী “সেন্টিনেল” মার্কা ড্রোন বিমান ভূপাতিত করেছিল. বিশেষজ্ঞরা মনে করেন যে, ইরানী ডিজাইনাররা “সেন্টনেলের” আভ্যন্তরীন ভাগ ব্যবহার করেছেন নিজেদের ড্রোন বিমান তৈরীর সময়.