একতরফা অগ্নি সংবরণ সম্বন্ধে রাষ্ট্রসঙ্ঘের সাধারণ সম্পাদক বান কি মুনের আহ্বান দামাস্কাস প্রত্যাখান করেছে, জানিয়েছে “ইতার-তাস” সংবাদ এজেন্সি. সিরিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধি জিহাদ মাকদেসি বলেছেন যে, সিরিয়ার সরকার ইতিমধ্যে দুবার এমন পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে. কিন্তু উভয় বারই সরকারবিরোধী শক্তির জঙ্গীরা তা ব্যবহার করেছে নিজেদের উপস্থিতি বিস্তারের জন্য. কূটনীতিজ্ঞ বলেন যে, দামাস্কাস রাষ্ট্রসঙ্ঘের সাধারণ সম্পাদকের কাছে সুপারিশ করতে চায় সংস্থার প্রতিনিধি পাঠাতে সৌদি আরবে, কাতারে এবং তুরস্কে – যে রাষ্ট্রগুলি সশস্ত্র বিরোধীপক্ষকে সাহায্য করছে. দামাস্কাস তাদের কাছ থেকে গ্যারান্টি পেতে চায় যে, সরকারবিরোধী জঙ্গীরা সিরিয়ায় হিংসা বন্ধ করবে. এমন গ্যারান্টি পাওয়ার পরেই সিরিয়ার কর্তৃপক্ষ “প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ সম্বন্ধে আলোচনা করতে প্রস্তুত হবে”, উল্লেখ করেন মাকদেসি. প্রসঙ্গত, সিরিয়ার সেনাধিপতিরা দেশের উত্তরাঞ্চলে সামরিক প্রযুক্তি পাঠাচ্ছে. বিগত ৪৮ ঘন্টায় বিদ্রোহীরা রণনৈতিক দিক থেকে গুরুত্বপূর্ণ শহর মাআরাত-নাআমান শহর দখল করেছে, যা দামাস্কাস- খালেব (আলেপ্পো) রাস্তায় অবস্থিত এবং অন্য প্রাদেশিক কেন্দ্র খান-শেইহুন দখলের হুমকি দিচ্ছে.