সিরিয়ার স্বাধীন বাহিনীর বিদ্রোহীরা দেশের সরকারের কাছে চরম দাবি পেশ করেছে. তারা আগস্ট মাসে আটক করা ইরানী তীর্থযাত্রীদের হত্যা করার হুমকি দিয়েছে, যদি ৪৮ ঘন্টার মধ্যে সিরিয়ার রাষ্ট্রপতি বাশার আসদের সরকার তাদের দাবি পুরণ না করে. সরকারবিরোধী বাহিনীর এক ফিল্ড-কম্যান্ডার বলেছে যে, তারা দামাস্কাসের কাছে দাবি করছে বিরোধীপক্ষের সমস্ত বন্দীকে মুক্ত করতে এবং অগ্নি সংবরণ করতে. কাতার থেকে সম্প্রচার করা “আল-আরাবিয়া” টেলি-চ্যানেলের কাছে থাকা ভিডিও-রেকর্ডে সে বলে, “অন্যথায় আমরা ইরানী তীর্থযাত্রীদের হত্যা করা শুরু করব”. সিরিয়ায় সরকারবিরোধী শক্তির দ্বারা দামাস্কাসের উপর চাপ দেওয়ার জন্য সন্ত্রাসের পদ্ধতি অবলম্বনের এটি প্রথম ঘটনা নয়. কয়েক মাস ধরে রাষ্ট্রপতি আসদের শাসনের বিরোধীরা দেশের বড় বড় শহরে সন্ত্রাসবাদী ক্রিয়াকলাপ চালাচ্ছে. এ সব সন্ত্রাসে ইতিমধ্যে বহু শান্তিপূর্ণ অধিবাসী নিহত হয়েছে. এদিকে, রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের আহ্বান সত্ত্বেও রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদ তাদের ক্রিয়াকলাপের নিন্দে করতে অস্বীকার করছে. আগস্টে সিরিয়ার সশস্ত্র বিরোধীপক্ষ ৪৮ জন ইরানীকে আটক করে এবং তাদের বিরুদ্ধে গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগ তোলে. বিরোধীপক্ষ এমনকি ঘোষণাও করেছে যে, তাদের হস্টেজরা – ইস্লামিক বিপ্লব রক্ষী বাহিনীর যোদ্ধা. তেহেরানে এ ধরণের বিবৃতি খণ্ডন করা হয়েছে এ নিশ্চয়োক্তি করে যে, ইরানীরা সিরিয়ায় ছিল তীর্থযাত্রায়.