জর্জিয়ায় পার্লামেন্টারী নির্বাচনে কোটিপতি বিদজিনা ইভানিশভিলি-র “জর্জিয়ার স্বপ্ন” নামে বিরোধী কোয়ালিশন পার্টি তালিকা অনুযায়ী জিতছে. ১২ শতাংশ প্রটোকল (৩৭৬৬ নির্বাচনী কেন্দ্রের মধ্যে ৪৫৫টি)গণনার ফলাফল অনুযায়ী পার্লামেন্টারী নির্বাচনে “জর্জিয়ার স্বপ্ন” কোয়ালিশন ৫৪ শতাংশ ভোট পেয়ে এগিয়ে রয়েছে, মঙ্গলবার কেন্দ্রীয় নির্বাচনী কমিশনের সাইটে প্রকাশিত ফলাফল তার প্রমাণ দিচ্ছে. দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে ক্ষমতাসীন “একক জাতীয় আন্দোলন” ৪১ শতাংশ ভোট পেয়ে. জর্জিয়ায় পার্লামেন্টারী নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে কোনো রূঢ় নিয়ম লঙ্ঘন ছাড়াই, সোমবার সন্ধ্যায় এক বিশেষ ব্রিফিংয়ে বলেছেন জর্জিয়ার কেন্দ্রীয় নির্বাচনী কমিশনের সভাপতি জুরাব হারাতিশবিলি. তাঁর কথায়, নির্বাচকরা সক্রিয়তা প্রকাশ করেছেন, এবং তাঁদের উপস্থিতি ছিল ৬০ শতাংশের উপর. বিরোধী “জর্জিয়ার স্বপ্ন” কোয়ালিশনের নেতা বিদজিনা ইভানিশভিলি নিজের পক্ষসমর্থকদের অভিনন্দন জানিয়েছেন. তিনি আশা করেন যে, দেশের নতুন পার্লামেন্টে কোয়ালিশন অন্ততপক্ষে ১০০টি আসন অথবা দুই তৃতীয়াংশ প্রতিনিধি ম্যান্ডেট পাবে. জর্জিয়ার রাষ্ট্রপতি মিখাইল সাকাশভিলি বলেছেন যে, এখনও ভোট গণনা করা হচ্ছে এবং সবকিছু স্পষ্ট হতে আরও কয়েক ঘন্টা লাগবে. সেই সঙ্গে তিনি স্বীকার করেছেন যে, পার্টি তালিকা অনুযায়ী এগিয়ে রয়েছে বিরোধী “জর্জিয়ার স্বপ্ন” কোয়ালিশন. তবে বড় কেন্দ্রগুলিতে যথেষ্ট জিতছে ক্ষমতাসীন “একক জাতীয় আন্দোলন”. সাকাশভিলি বলেন, “এইভাবে, আমাদের সামনে রয়েছে এমন চিত্র, যক আরও হিসেব করতে এবং স্পষ্ট করে নিতে হবে পার্লামেন্টে কার সংখ্যাধিক্য থাকবে. তবে একটা বিষয় স্পষ্ট – নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে”.