জাপানের প্রধানমন্ত্রী ইয়োসিহিকো নোদা নিজের মন্ত্রী পরিষদে অদল-বদল করছেন. তার উদ্দেশ্য – পার্লামেন্টের নির্বাচনের আগে প্রধানমন্ত্রী এবং ক্ষমতাসীন ডেমোক্রেটিক পার্টির স্থিতি সুদৃঢ় করা. এ নির্বাচন আগামী এক বছরের মধ্যে আয়োজন করার পরিকল্পনা আছে. আজ সকালে নোদা আগের মন্ত্রীসভার পদত্যাগ গ্রহণ করেছেন. নতুন মন্ত্রীসভা ঘোষণা করা হবে আজকের মধ্যেই. আশা করা হচ্ছে যে, ১৮ জন মন্ত্রীর মধ্যে ১০ জনকে বদল করা হবে. প্রচার মাধ্যমের তথ্য অনুযায়ী, ইতিমধ্যে জানা গেছে যে, প্রধানমন্ত্রী নিজেদের পদে বজায় রাখবেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী কোইতিরো গেমবা-কে, প্রতিরক্ষামন্ত্রী সাতোসি মোরিমোতো-কে এবং মন্ত্রীসভার প্রধান সচিব ওসামা ফুজিমুরা-কে. ২০১১ সালের সেপ্টেম্বরে নোদা-র প্রধানমন্ত্রী পদের শুরু থেকে সরকারে এটি তৃতীয় বদল.পার্লামেন্ট ভেঙ্গে দেওয়া এবং প্রাকমেয়াদী নির্বাচন আয়োজনের প্রতিশ্রুতি তিনি বিরোধীপক্ষকে দেন তাদের দ্বারা অতি অ-জনপ্রিয় আইনের খসড়া সমর্থনের বদলে, যে আইনের উদ্দেশ্য হল জাপানের বিশাল রাষ্ট্রীয় ঋণ হ্রাস করা.