মালি দেশের সাহেল্যা অঞ্চলে পরিস্থিতি মীমাংসার জন্য বলপ্রয়োগ সম্ভাবনা বিবেচিত হতে পারে শুধু রাষ্ট্রসঙ্ঘের সংবিধি অনুযায়ী. এ সম্বন্ধে বলেছেন আফ্রিকার দেশগুলির সাথে সহযোগিতা সংক্রান্ত রাশিয়ার রাষ্ট্রপতির বিশেষ প্রতিনিধি মিখাইল মার্গেলোভ. বুধবার তিনি রাষ্ট্রসঙ্ঘের সাধারণ অ্যাসেম্বলির ৬৭তম অধিবেশনের কাঠামোতে সাহেল্যা অঞ্চলের পরিস্থিতি নিয়ে উচ্চ পর্যায়ের সাক্ষাতে বক্তৃতা দিয়ে পশ্চিম আফ্রিকার দেশগুলির অর্থনৈতিক সমিতির আঞ্চলিক প্রচেষ্টা সমর্থন করেন. সাক্ষাতে আলোচনার কেন্দ্রস্থলে ছিল মালি-র পরিস্থিতি এবং সাহারা-সাহেল্যা অঞ্চলে লিবিয়া সঙ্কটের পরিণতি. মার্গেলোভ বলেন, “আমাদের, এবং আমাদের অন্যান্য আন্তর্জাতিক শরিকদের বিশেষ করে উদ্বেগ জাগায় এ ঘটনা যে, মালি-র উত্তরাঞ্চলে এখন মুখ্য ভূমিকা পালন করছে খোলাখুলি চরমপন্থী শক্তিগুলি, যারা সন্ত্রাসবাদী সংস্থা, সেই সঙ্গে “আল-কাইদার” সাথে নিজেদের সম্পর্ক আড়াল করছে না”. মালি-তে ২২শে মার্চ সামরিক কুদেতা হয়েছে. বিদ্রোহী বাহিনীর অধিনায়কমন্ডলীর প্রতিনিধিরা রাষ্ট্রপতি আমাদু তুমানি তুরে-কে শাসন ক্ষমতা থেকে সরিয়ে দিয়েছে. তুয়ারেগ-রা এপ্রিলের গোড়ায় মালির উত্তরে আজাওয়াদ অঞ্চলের স্বাধীনতা ঘোষণা করে. একই সঙ্গে সেখানে নিজেদের প্রভাব জোরদার করে নানা ইস্লামিক গ্রুপ, বিশেষ করে “এক ঈশ্বর ও জিহাদ” গ্রুপ.