ভারত নিজের বিমান বাহিনীর বিকাশ এবং তাকে নতুন সামরিক প্রযুক্তিতে সজ্জিত করার জন্য ২০২২ সাল পর্যন্ত ৩৫০০ কোটি ডলার খরচ করতে চায়. ভারতের বিমানবাহিনীর সদর দপ্তরের উপ-অধিকর্তার উদ্ধৃতি দিয়ে এ সম্বন্ধে জানিয়েছে “টাইমস অফ ইন্ডিয়া” পত্রিকা. বহু সংখ্যক সেকেলে হয়ে পড়া মিগ-২১ বিমান বিমানবাহিনী থেকে বাদ দেওয়ার পরে বিমানবাহিনীতে রয়েছে এখন ৩৩-৩৪টি ফাইটার বিমানের স্কোয়ড্রন (প্রতিটি স্কোয়াড্রনে ১২-১৮টি বিমান). ভারতের বিমানবাহিনীর পরিকল্পনায় আছে স্কোয়ড্রনের সংখ্যা বৃদ্ধি ৩৯টি পর্যন্ত ২০১৭ সাল নাগাদ, যাতে তা চীন ও পাকিস্তানের জন্য “সক্রিয় সংযত রাখার উপাদান” হয়ে ওঠে, লিখেছে “টাইমস অফ ইন্ডিয়া” পত্রিকা. বিমানবাহিনীর খরচ বাড়ছে বছরে ১২-১৫ শতাংশ. দিল্লিতে এক সাক্ষাতে তিনি উল্লেখ করেন যে, সামরিক প্রযুক্ত, জাহাজ ও সাবমেরিন কেনার পরিকল্পনা এবং তাছাড়া নৌবাহিনীর বিমানের জন্য আগামী ১৫ বছরে ৫২০০ কোটি ডলারের উপর খরচ অনুমিত.