বিশ্বে কোন দেশে সর্বাধিক শিক্ষিত লোকদের তালিকায় রাশিয়া প্রথম স্থানে রয়েছে. ২৫ থেকে ৬৪ বছর বয়সী রুশ লোকদের মধ্যে শতকরা ৫৪ ভাগ লোকই উচ্চ শিক্ষা প্রাপ্ত, এই ধরনের তথ্য প্রকাশ করেছে আন্তর্জাতিক অর্থনৈতিক ও বিকাশ সহায়তা সংস্থা. তার পরেই আছে কানাডা ও ইজরায়েল. সব থেকে বেশী চাহিদা আছে, এমন রুশ বিশেষজ্ঞদের নিয়ে রেডিও রাশিয়া বিশেষজ্ঞ পর্যায়ে আলোচনার আয়োজন করেছিল.

বেশীর ভাগ উচ্চ শিক্ষিত লোকই হলেন প্রযুক্তি ক্ষেত্রে বিশেষজ্ঞ: ইঞ্জিনিয়ার ও প্রোগ্রামার. রাশিয়ার বিশেষজ্ঞদের শিক্ষার মান যথেষ্ট উঁচু, তাই বহু প্রযুক্তি প্রশিক্ষণ প্রতিষ্ঠান শেষ করা লোকরাই কোন রকমের সমস্যা ছাড়াই, যেমন রাশিয়াতে, তেমনই বিদেশে কাজ খুঁজে পান, এই রকম মনে করে কেল্লী সার্ভিসেস নামের চাকরি সহায়তা প্রতিষ্ঠানের জন সংযোগ অধিকর্তা দিমিত্রি কোসভ বলেছেন:

“আমাদের দেশে খুবই বেশী করে উচ্চ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গুলি উন্নত, আর বেশীর ভাগই, সেখানে কাজ করা লোকদের রয়েছে উচ্চ শিক্ষার মানপত্র বা ডিপ্লোমা. বেশীর ভাগ ক্ষেত্রেই খুবই বিশিষ্ট ধরনের জ্ঞান ও অভিজ্ঞতা সম্পন্ন লোকদের চাহিদা রয়েছে. এঁরা হলেন, বিজ্ঞান প্রযুক্তি বিষয়ে বিশেষজ্ঞ, তথ্য প্রযুক্তি বিষয়ে বিশেষজ্ঞ আর সেই সমস্ত লোক, যাঁরা বৈজ্ঞানিক গবেষণা সংক্রান্ত কাজ করে থাকেন. সেই সব লোক, যাঁরা সত্যই নির্দিষ্ট ধরনের জ্ঞান অর্জন করেছেন ও তারই সঙ্গে বিদেশী ভাষায় দখল রাখেন. তাই বিশ্বের যে কোন দেশেই এঁদের মধ্যে সেরা লোকদের সব সময়েই চাওয়া হয়ে থাকে”.

রাশিয়ার লোকরা তাঁদের সাধারন জ্ঞান ও প্রত্যুত্পন্নমতিত্বের জন্য বিখ্যাত. ঠিক সেই কারণেই তাঁদের বিদেশে চাওয়া হয়ে থাকে গড় বুদ্ধিজীবির চেয়ে ব্যতিক্রমী চিন্তাধারায় সক্ষম বিশেষজ্ঞ হিসাবে. বিশেষ করে আধুনিক প্রযুক্তি ক্ষেত্রে, এই রকমের বিশ্বাস নিয়ে হেড হান্টার চাকরি সহায়তা কোম্পানীর গবেষণা বিভাগের প্রধান গ্লেব লেবেদেভ বলেছেন:

“আমাদের দেশে প্রযুক্তি সংক্রান্ত প্রশিক্ষণ ঐতিহ্য গত ভাবেই খুব শক্তিশালী. বিশেষ করে তাত্ত্বিক বিভাগ গুলিতে. আমাদের প্রোগ্রামার লোকদের ঐতিহ্য মেনেই মনে করা হয়ে থাকে সবচেয়ে শক্তিশালী বলে. এখানে আমরা কোন রকমের প্রতিযোগিতারই উর্দ্ধে. এটা এই কারণে আরও যে, প্রোগ্রাম লেখার ভাষা সারা বিশ্বেই একই ধরনের ও সেখানে জাতীয় বিশেষত্ব হিসাবের মধ্যে আনার কোনও দরকার নেই. আমাদের গণিত ও পদার্থ বিদ্যায় বিশেষজ্ঞরাও যথেষ্ট শক্তিশালী বিজ্ঞানী”.

এই প্রসঙ্গে রাশিয়ার লোকদের সাফল্যের কারণ লুকিয়ে রয়েছে, তাঁদের মানসিকতার মধ্যেই. বাস্তবে প্রায় প্রত্যেক স্কুল থেকে পাশ হওয়া ছাত্রই চায় বিশ্ববিদ্যালয় অথবা কলেজে ভর্তি হতে, যাতে শুধু পেশা অর্জন করাই সম্ভব হয়, বরং তার সঙ্গে জ্ঞানও অর্জন করা যায়.

আরও একটি রুশ উচ্চ প্রশিক্ষণ ব্যবস্থার গুণ হল যে, প্রথম বর্ষ থেকেই নিজের ক্যারিয়ার তৈরী করার সম্ভাবনা. ছাত্ররা সাধারণতঃ দিনে কয়েক ঘন্টাই ক্লাস করে থাকে, আর বাকী সময় কাজ করে. ফলে তাদের পড়াশোনার শেষে তারা প্রায়ই খুবই উচ্চ শিক্ষিত ও অভিজ্ঞ পেশাদার লোকে পরিণত হয়.