এশীয়-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অর্থনৈতিক সহযোগিতা সংস্থার কারবারী পরামর্শ পরিষদের অংশগ্রহণকারীরা, যাঁদের সম্মেলন চলছে ভ্লাদিভস্তোকে, ২০১২-২০১৪ সালে খাদ্য-নিরাপত্তার ক্ষেত্রে শরিকানা কাজের পরিকল্পনা অনুমোদন করেছেন. এ পরিকল্পনা ভ্লাদিভস্তোকে ৮ই সেপ্টেম্বর এ সংস্থার দেশগুলির অর্থনীতির নেতাদের সাক্ষাতে বিবেচনা এবং অনুমোদনের জন্য পেশ করা হবে. এশীয়-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অর্থনৈতিক সহযোগিতা সংস্থার কারবারী পরামর্শ পরিষদের বৈঠক অনুষ্ঠিত হচ্ছে এশীয়-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অর্থনৈতিক সহযোগিতা সংস্থার শীর্ষ সাক্ষাতের সপ্তাহের কাঠামোতে এবং তা এ বছরে পরিষদের শেষ সাক্ষাত্. শরিকানার মুখ্য প্রাধান্যগুলির মাঝে আছে – কৃষি ক্ষেত্রে প্রকৌশল বিকাশে সহায়তা, খাদ্যদ্রব্যের আমদানি ও রপ্তানির পরিকাঠামো বিকাশ, সমাজের অরক্ষিত স্তরের জনসাধারণের জন্য খাদ্যদ্রব্যের সুলভতা বৃদ্ধি, শুল্ক, অনাময় ও পশু চিকিত্সা ব্যবস্থাগুলির সঙ্গতি সাধন, উল্লেখ করা হয়েছে বৈঠকে.