রাশিয়ার বিশেষজ্ঞরা এ বছরের ডিসেম্বরের শেষে ইরানী শরিকদের বুশের পারমাণবিক বিদ্যুত্ কেন্দ্র হস্তান্তর করবে গ্যারান্টিকৃত ব্যবহারের জন্য. এ সম্বন্ধে বলেছেন আতোমস্ত্রোইএক্সপোর্ত কোম্পানির ইরানে পারমাণবিক বিদ্যুত্ কেন্দ্র নির্মাণ সংক্রান্ত বিভাগের অধিকর্তা ইগর মেজেনিন. তাঁর কথায়, প্রথম ব্লকের রিয়াক্টর ১০০ শতাংশ ক্ষমতায় চালু করার পর একসারি পরীক্ষা করা হবে, যা অক্টোবর মাসের অন্তিম দশ দিনে শেষ করার কথা. প্রয়োজনীয় এ সব পরীক্ষা শেষ হওয়ার পর পরিকল্পনানুগ সতর্কতামূলক মেরামত করা হবে, যোগ করে বলেন মেজেনিন. তিনি উল্লেখ করেন যে, বর্তমানে পারমাণবিক বিদ্যুত্ কেন্দ্র ব্যবহারের কাঠামোতে ইরানী কর্মীদের পরিকল্পনা অনুযায়ী প্রস্তুত করা হচ্ছে, তবে তা এখনও যথেষ্ট নয়. এজন্য বর্তমানে এনার্জি-ব্লকগুলির ব্যবহার সংক্রান্ত অতিরিক্ত চুক্তি আলোচনা করা হচ্ছে. এইভাবে আপাতত এ প্রকল্পে কাজ চালানো হবে যৌথভাবে, উক্ত অতিরিক্ত চুক্তি তিন বছরের জন্য নির্ধারিত, উল্লেখ করেন মেজেনিন. বুশেরে পারমাণবিক বিদ্যুত্ কেন্দ্রের নির্মাণ শুরু হয় ১৯৭৪ সালে, এবং তা করে জার্মানির “ক্রাফ্টওয়ের্ক ইউনিয়ন এ.জি (সিমেন্স/কে.ডাব্লিউ.ইউ)”. কিন্তু তা বন্ধ হয়ে যায়. রাশিয়া এবং ইরানের সরকারের মাঝে পারমাণবিক বিদ্যুত্ কেন্দ্র নির্মাণ সম্পর্কে চুক্তি স্বাক্ষরিত হয় ১৯৯২ সালের ২৫শে আগস্টে, আর ১৯৯৫ সালের জানুয়ারীতে কেন্দ্রের প্রথম ব্লক নির্মাণের চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়. এই “বুশের” পারমাণবিক বিদ্যুত্ কেন্দ্র চালু করা শুরু হয় ২০১০ সালের আগস্টে আন্তর্জাতিক পারমাণবিক শক্তি এজেন্সির পরিদর্শকদের নিয়ন্ত্রণে.