হোয়াইট হাউজ ইস্রাইলী প্রচার মাধ্যমের এ খবর অস্বীকার করেছে যে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র নাকি ইরানের সাথে গোপন আলাপ-আলোচনা চালিয়েছে, ওয়াশিংটনে বলেছেন হোয়াইট হাউজের প্রতিনিধি জে কারনি. সাংবাদিকদের কারনি বলেন, “এ খবর ঠিক নয়, একেবারেই ঠিক নয়”. আগে ইস্রাইলের “এদিওত আখ্রোনত” সংবাদপত্র একটি প্রবন্ধ প্রকাশ করেছিল, যাতে বলা হয়েছে যে, মার্কিন রাষ্ট্রপতি বারাক ওবামার প্রশাসন ইরানের বিরুদ্ধে ইস্রাইলের সামরিক অভিযান সমর্থন করবে না. পত্রিকার প্রবন্ধে বলা হয়েছে যে, হোয়াইট হাউজ এ খবর ইরান-কে জানিয়েছে দুটি ইউরোপীয় দেশের প্রতিনিধির মাধ্যমে. প্রবন্ধে বলা হয়েছে যে, ওয়াশিংটন নিজের বার্তায় তেহেরানকে আশ্বাস দিয়েছে যে, সম্ভাব্য ইরান-ইস্রাইলী যুদ্ধে নিজেকে জড়িয়ে পড়তে দেবে না. প্রবন্ধকার সেই রাষ্ট্রের নাম করেন নি, যার মাধ্যমে এ খবর পাঠানো হয়েছিল. তার তথ্য অনুযায়ী, ওয়াশিংটন আশা করছে যে, ইরানের উপর ইস্রাইলী আঘাতের ক্ষেত্রে ইরানী সৈনিকরা পারস্য উপসাগরে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের স্ট্র্যাটেজিক লক্ষ্যবস্তুর উপর, বিশেষ করে, এ অঞ্চলে মার্কিনী সামরিক ঘাঁটি, জাহাজ ও বিমানবাহী জাহাজের উপর আক্রমণ করবে না. মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সশস্ত্র বাহিনীর সদর দপ্তরগুলির অধিকর্তাদের ঐক্যবদ্ধ কমিটির সভাপতি মার্টিন ড্যাম্পসি আগে বলেছিলেন যে, ইরানের উপর ইস্রাইলের আঘাত পারমাণবিক কর্মসূচি নিয়ে তেহেরানের কাজ শুধু মন্থর করতে পারে. এইভাবে, সামরিক অধিকর্তা আবার ইঙ্গিত দিয়েছেন যে, ইরানের পারমাণবিক প্রকল্পের উপর ইস্রাইলের আগাত হানার ধারণা সমর্থন করেন না.