রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভরোভ এবং মার্কিনী পররাষ্ট্র সচিব হিলারী ক্লিন্টন ভ্লাদিভস্তোকে এশীয়-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অর্থনৈতিক সহযোগিতা সংস্থার শীর্ষ সাক্ষাতের সময় সাক্ষাতে সিরিয়ার প্রশ্ন আলোচনা করতে চান. সোমবার রিয়া নোভস্তি সংবাদ এজেন্সিকে প্রদত্ত ইন্টারভিউতে রাশিয়ার কূটনীতিজ্ঞ বলেন যে, সিরিয়া সম্পর্কে মস্কো ও ওয়াশিংটনের স্থিতি “মূলনীতিগতভাবে পরস্পরবিরোধী নয়”. লাভরোভ উল্লেখ করেন যে, সমস্ত দেশের দ্বারা সিরিয়ার সার্বভৌমত্ব, স্বাধীনতা, ঐক্য ও দেশের ভূভাগীয় অখণ্ডতার প্রতি শ্রদ্ধার ভিত্তিতে সিরিয়ার গণতন্ত্রে উত্তরণের পক্ষে মত প্রকাশ করছে রাশিয়া. মন্ত্রীর কথায়, “মতভেদের মূল রয়েছে এ লক্ষ্যের দিকে অগ্রগতির দৃষ্টিভঙ্গীতে”. লাভরোভ ব্যাখ্যা করে বলেন যে, মার্কিনীদের জন্য প্রদান হল – বাশার আসদ-কে সরিয়ে দেওয়া এবং বিদেশ থেকে সিরিয়া সঙ্কট মীমাংসার নক্সা চাপিয়ে দেওয়া. রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, রাশিয়া প্রস্তাব করছে সিরিয়া সঙ্কট মীমাংসায় জেনেভা সমঝোতার দ্বারা পরিচালিত হওয়ার. এ সমঝোতা অনুযায়ী, সঙ্ঘর্ষরত পক্ষগুলির অগ্নি সংবরণ করা উচিত এবং দায়িত্বপ্রাপ্ত আলাপ-আলোচনাকারীদের নিযুক্ত করা দরকার. বাকি সবকিছু মীমাংসা করা উচিত খাস সিরিয়াবাসীদেরই. মন্ত্রী বলেন, “দেশের ভবিষ্যত্ সম্বন্ধিত প্রশ্নে কোনো কিছুর নির্দেশ দেওয়া উল্টো ফলদায়ক হবে. আর বাইরে থেকে চাপিয়ে দেওয়া মীমাংসা স্থিতিশীল হবে বলেও মনে হয় না”.