রাষ্ট্রসঙ্ঘ ও আরব লীগের সিরিয়া সংক্রান্ত সমস্যা সমাধানের জন্য বিশেষ প্রতিনিধি লাখদার ব্রাহিমি মনে করেন যে, সিরিয়ার বিরোধের অবসানে বিদেশ থেকে সামরিক অনুপ্রবেশ কখনোই গ্রহণযোগ্য উপায় হতে পারবে না. “আল- আরাবিয়া” টেলিভিশন চ্যানেলে দেওয়া এক সাক্ষাত্কারে তিনি বলেছেন যে, “সিরিয়াতে সামরিক অনুপ্রবেশের অর্থ হবে কূটনৈতিক শক্তি প্রয়োগের বিফল হওয়া”. তাঁর জন্য এই পথ গ্রহণযোগ্য নয়, বিশেষ করে উল্লেখ করেছেন আলজিরিয়ার কূটনীতিজ্ঞ. এই প্রসঙ্গে তিনি ঘোষণা করেছেন যে, সিরিয়ার সরকারই বিরোধীদের চেয়ে বেশী করে হিংসা বন্ধ করার জন্য দায়িত্ব নিতে পারে. ব্রাহিমি সিরিয়া সরকারের কাছে আহ্বান করেছেন দেশের জনগনের দাবীর স্বপক্ষে যাওয়ার, যারা চায় দেশে “পরিবর্তন হোক”. কূটনীতিজ্ঞ যোগ করেছেন যে, তাঁর মিশন সফল হতে পারে না, যদি না রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদের সমস্ত সদস্য দেশ ও অন্যান্য দেশ গুলিও তাঁর প্রয়াসকে সমর্থন করে. ব্রাহিমিকে বিশ্বে একজন নেতৃস্থানীয় কূটনীতিবিদ বলেই মানা হয়ে থাকে, তিনি বহু জটিল বিরোধের মীমাংসার কাজে অংশ নিয়েছেন, তার মধ্যে লেবানন, আফগানিস্তান ও ইরাক ছিল. ব্রাহিমিকে বর্তমানের পদে নিয়োগ করা হয়েছে যেহেতু কোফি আন্নান এই পদ থেকে নিজেই সরে গিয়েছেন. গত শনিবারে ব্রাহিমি এই পদে কাজ শুরু করেছেন.