0৭ থেকে ১৭ই আগষ্ট পূর্ব সাইবেরিয়ার বুরিয়াতি রাজ্যে যৌথ ভারত - রাশিয়া সামরিক প্রশিক্ষণ "ইন্দ্র - ২০১২" শেষ হয়েছে.

এই প্রশিক্ষণের সময়ে রাশিয়া ও ভারতের সামরিক বাহিনীর লোকরা এক অপারেশন করেছেন, যেখানে কল্পিত বেআইনি সশস্ত্র যোদ্ধাদের দলকে ধ্বংস করা হয়েছে. ট্যাঙ্ক, পদাতিক বাহিনীর যুদ্ধের গাড়ী ও সাঁজোয়া গাড়ী থেকে গোলা বর্ষণ করে সন্ত্রাসবাদীদের বাধা ভেঙে দেওয়া সম্ভব হয়েছিল. আকাশ পথে পদাতিক বাহিনীর কৌশল কে সহায়তা করেছে যুদ্ধের সামরিক বিমান.

সম্মিলিত ভাবে এই প্রশিক্ষণ "ইন্দ্র", প্রথমবার হয়েছিল ২০০৩ সালে, তারপর থেকেই এটা প্রতিবার ঐতিহ্য মেনেই করা হয়েছে প্রতি দ্বিতীয় বছরে. তার লক্ষ্য হল - ভারতীয় ও রুশ সামরিক বাহিনীর লোকদের পারস্পরিক ভাবে কাজ করার অভ্যাস করানো, যাতে তারা সন্ত্রাসবাদীদের মোকাবিলা করতে পারে. এর আগের ভারত রাশিয়া সম্মিলিত মহড়া হয়েছিল ভারতে ২০১০ সালেই.

এই প্রশিক্ষণে ২৫০ জন ভারতীয় ও ২৫০ জন রুশ সেনা বাহিনীর জওয়ান অংশ নিয়েছেন, প্রায় ৫০টি যুদ্ধের ও বিশেষ কাজের যন্ত্র ব্যবহৃত হয়েছে.

ভারতের সামরিক বাহিনীর লোকেরা এই প্রশিক্ষণের সময়ে "টি - ৭২" ট্যাঙ্ক ও পদাতিক বাহিনীর সাঁজোয়া গাড়ী "বিএমপি - ২" পেয়েছে. তাছাড়া মহড়ার সময়ে কাজে লাগানো হয়েছিল স্বয়ংক্রিয় বাবে চলতে পারে এমন গোলা বর্ষণের যন্ত্র "কার্নেশন" ও রিয়্যাক্টিভ একসাথে অনেক গোলা বর্ষণ করতে পারে এমন ব্যবস্থা "গ্রাদ". তারই সঙ্গে সু - ২৫ যুদ্ধ বিমান, সু - ২৪ বোমারু বিমান আর হেলিকপ্টার মি - ২৪ ও মি- ৮ ব্যবহার করা হয়েছে.